শুধু ক্রোয়েশিয়ার হাজার হাজার ফুটবলপ্রেমী নয়। ইভান পেরিসিচকে নিয়ে আগ্রহ কম নয় ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড সমর্থকদেরও। জোসে মোরিনহোর অত্যন্ত প্রিয় এই উইঙ্গার। ম্যান ইউ কোচের কথায়, ‘‘প্রচুর দৌড়ে বল সেন্টার করতে অনেকেই পারে। কিন্তু পেরিসিচ একই সঙ্গে সৃষ্টিশীল ও সুস্বাস্থ্যের অধিকারী। তা ছাড়া শূন্যের বল-এ হেড করায় কোনও বিশ্বসেরার চেয়ে কম যায় না।’’ ক্রোয়েশিয়ার এই উইঙ্গার মোরিনহোর এতটাই প্রিয় যে গত মরসুমে তাঁকে নিজের ক্লাবে সই করাতে অনেকটা এগিয়েছিলেন। কিন্তু ইতালির ক্লাবটি তাঁকে বিক্রি করার জন্য শেষ মুহূর্তে অবিশ্বাস্য দাম চেয়ে বসে। তাই ম্যান ইউ-ও পিছিয়ে যায়।

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে সেই পেরিসিচই আবার নায়ক। নিজে গোল করে ১-১ করেছেন। অতিরিক্ত সময়ে দ্বিতীয় গোলটিও মাঞ্জুকিচ করেন তাঁর পাস থেকেই। স্বভাবতই এ মরসুমেও তাঁকে যে কোনও মূল্যে দলে পেতে ম্যান ইউ ঝাঁপাবে বলে খবর।

২৯ বছরের পেরিসিচ অবশ্য এই মুহূর্তে ক্লাব ফুটবল নিয়ে আলোচনা পছন্দ করছেন না। তাঁর পাখির চোখ এখন, বিশ্বকাপ। বলেছেন, ‘‘ভাবতে পারছি না ফাইনাল খেলব। এই আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করা যায় না।’’ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘‘কেউ ভাবেনি আমরা এত দূর যাব। পিছিয়েও একটা দলের ম্যাচ জেতা থেকে বোঝা যাচ্ছে, আমাদের টিম স্পিরিট অসাধারণ। সামনে আর একটাই ম্যাচ। এখন আগের চেয়েও আমাদের মনোবল ভাল। মনে হচ্ছে, কাপটা আমরাই নিয়ে যাব।’’

আরও পড়ুন:  ইউরো ফাইনাল থেকেই বড় শিক্ষা পোগবার