Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

কুদ্রাতের রণনীতি এবং জটিল অঙ্কে অস্বস্তি এটিকের

শুভজিৎ মজুমদার 
০৮ মার্চ ২০২০ ০৪:৫৬
যুযুধান: অনুশীলনে কৃষ্ণ এবং সুনীল (নীচে)। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

যুযুধান: অনুশীলনে কৃষ্ণ এবং সুনীল (নীচে)। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

রয় কৃষ্ণ বনাম সুনীল ছেত্রী। আন্তোনিয়ো লোপেস হাবাস বনাম কার্লেস কুদ্রাত।

অথচ আজ, রবিবার যুবভারতীতে এটিকে বনাম বেঙ্গালুরু এফসি দ্বৈরথের আগে আকর্ষণের কেন্দ্রে ফাইনালে ওঠার জটিল অঙ্ক।

আইএসএল সেমিফাইনালের প্রথম পর্বে বেঙ্গালুরুতে নিজেদের মাঠে সুনীল ছেত্রীরা ১-০ হারিয়েছিলেন এটিকে-কে। এই পরিস্থিতিতে যুবভারতীতে দ্বিতীয় পর্বে রয় কৃষ্ণদের শুধু জিতলেই হবে না, অন্তত দু’গোলের ব্যবধান রাখতে হবে। অর্থাৎ, নির্ধারিত সময়ে ফল যদি এটিকের পক্ষে ১-০ থাকে, ম্যাচ গড়াবে অতিরিক্ত সময়ে। কারণ, দুই পর্ব মিলিয়ে ফল তখন ১-১ হয়ে যাবে। অতিরিক্ত সময়েও ফল অপরিবর্তিত থাকলে টাইব্রেকারে ম্যাচের ফয়সালা হবে। এমনকী, এটিকে ২-১ জিতলেও ফাইনালে চলে যাবে বেঙ্গালুরু। কারণ, অ্যাওয়ে গোলের হিসাবে এগিয়ে থাকবেন সুনীলেরা। এই পরিস্থিতিতে নির্ধারিত সময়ে ২-০ জিতেই ফাইনালে খেলা নিশ্চিত করতে মরিয়া হাবাস-বাহিনী।

Advertisement

ফাইনালে ওঠার এই জটিল অঙ্কই যেন বদলে দিয়েছে এটিকে কোচকে। মাঠে ও মাঠের বাইরে হাবাস সব সময়ই আক্রমণাত্মক মেজাজে থাকেন। তাঁর এই দর্শন ফুটবলারদের মধ্যেও ছড়িয়ে দিয়েছেন। ম্যাচের শুরু থেকেই গোলের জন্য ঝাঁপান রয় কৃষ্ণ, ডেভিড উইলিয়ামসরা। এই কারণেই চলতি আইএসএলে এখনও পর্যন্ত ৩৩টি গোল করেছে এটিকে।

রংয়ের উৎসবের আগের দিন রবিবাসরীয় যুবভারতীতে এটিকে-কে শুধু গোল করলে হবে না, আটকাতেও হবে। এখানেই শেষ নয়। বেঙ্গালুরু এফসির স্পেনীয় কোচ কার্লেসের রক্ষণাত্মক রণনীতিও অস্বস্তি বাড়াচ্ছে হাবাসের। প্রথম পর্বে ৫৯ শতাংশ বল নিজেদের দখলে রেখেও জিততে পারেননি ডেভিডরা। এটিকে শিবিরের আশঙ্কা, রবিবার আরও রক্ষণাত্মক খেলবে বেঙ্গালুরু। তাই শুরুতে গোল করে বেঙ্গালুরুকে চাপে ফেলার রণনীতিকে অস্ত্র করেই মাঠে নামার পরিকল্পনা হাবাসের। যদিও শনিবার বিকেলে যুবভারতীতে সাংবাদিক বৈঠকে সতর্ক এটিকে কোচ বললেন, ‘‘গোল করাটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তবে তার চেয়েও বেশি জরুরি গোল না খাওয়া।’’ হঠাৎ নিজেকে বদলে ফেলার রহস্য কী? হাবাসের ব্যাখ্যা, ‘‘সেমিফাইনাল অন্য ম্যাচগুলোর মতো নয়। এখানে হারলেই ছিটকে যেতে হবে। মনে রাখতে হবে, আমরা ০-১ পিছিয়ে থেকে নামব।’’

দ্বিতীয় বার আইএসএল জয়ের স্বপ্নপূরণে মরিয়া বেঙ্গালুরু কোচ যে কোনও ঝুঁকি নেবেন না, তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন। শনিবার বিকেলে যুবভারতী সংলগ্ন মাঠে অনুশীলনে রক্ষণ শক্তিশালী করার ব্যাপারেই বেশি জোর দেন তিনি। কুদ্রাত বলেছেন, ‘‘কোনও গোল না খেয়ে প্রথম পর্বের ম্যাচটা জেতা ছিল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। রবিবারও একই পরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নামব।’’ লিগ পর্বে এটিকের বিরুদ্ধে ০-১ হেরে যুবভারতী ছেড়েছিলেন কুদ্রাত। গোল করেছিলেন ডেভিড। সেই যন্ত্রণা এখনও ভুলতে পারেননি বেঙ্গালুরু কোচ। বলেছেন, ‘‘ঘরের মাঠে এটিকের রেকর্ড খুব ভাল। ওদের বেশ কয়েক জন ফুটবলারের ম্যাচের রং বদলে দেওয়ার ক্ষমতা আছে। তা ছাড়া কার্ড সমস্যায় ডিফেন্ডার নিশু কুমারকে পাব না। তবে ম্যাচের আগে আমি বেশি কথা বলতে চাই না। পরিকল্পনাও ফাঁস করতে চাই না।’’ বেঙ্গালুরু মাঝমাঠের অন্যতম ভরসা দেলগাদো দিমাস অবশ্য খোলাখুলি বলছেন, ‘‘আক্রমণের দিক থেকে এটিকে সেরা শক্তি। অসাধারণ প্রতিভাবান দুই স্ট্রাইকার রয়েছে ওদের। আমাদের লক্ষ্য, এই ম্যাচে এদু গার্সিয়ার সঙ্গে রয় কৃষ্ণ ও ডেভিডের যোগাযোগ ছিন্ন করে দেওয়া।’’

রবিবার আইএসএল সেমিফাইনালে: এটিকে বনাম বেঙ্গালুরু এফসি (যুবভারতী, সন্ধে ৭.৩০, স্টার স্পোর্টস ওয়ান চ্যানেলে)।

আরও পড়ুন

Advertisement