×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জুন ২০২১ ই-পেপার

করোনা যুদ্ধে ‘অক্সিজেন’ দিলেন কেকেআর-এর অস্ট্রেলীয় জোরে বোলার প্যাট কামিন্স

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৬ এপ্রিল ২০২১ ১৭:২৫
বাইশ গজের যুদ্ধে লড়াই করলেও মাঠের বাইরে মহানুভবতার পরিচয় দিলেন প্যাট কামিন্স।

বাইশ গজের যুদ্ধে লড়াই করলেও মাঠের বাইরে মহানুভবতার পরিচয় দিলেন প্যাট কামিন্স।
ফাইল চিত্র

করোনা যুদ্ধে আর্থিক সাহায্য করার জন্য এগিয়ে এলেন প্যাট কামিন্সপ্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ৫০ হাজার ডলার (প্রায় ৩৮ লক্ষ টাকা) অনুদান দিলেন। দেশজুড়ে কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ ইতিমধ্যেই আছড়ে পড়েছে। এমন অবস্থায় দেশে ফিরে না গিয়ে বরং ভারতের নাগরিকদের পাশে দাঁড়ালেন অস্ট্রেলিয়ার এই জোরে বোলার।

করোনার জন্য গোটা দেশে অক্সিজেনের অভাব দেখা দিয়েছে। মূলত সেই অভাব মেটানোর জন্য এমন উদ্যোগ নিলেন তিনি। সোমবার আমদাবাদের নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামে পঞ্জাব কিংসের বিরুদ্ধে খেলতে নামার আগে টুইটারে এই অনুদানের কথা জানালেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের এই তারকা বোলার।

ভারতের পাশে দাঁড়িয়ে প্যাট কামিন্স টুইটারে লিখেছেন, ‘ভারতকে খুবই ভালবাসি। এই দেশের সাধারণ মানুষ আমাদের মতো বিদেশিদের খুব তাড়াতাড়ি আপন করে নেয়। আমাদের প্রতি এত ভালবাসার জন্য আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ। এই মুহূর্তে গোটা ভারত করোনার বিরুদ্ধে ফের একবার লড়াই করছে। কোভিডের মধ্যেও আইপিএল আয়োজন হওয়া নিয়ে অনেক জায়গায় আলোচনা হচ্ছে। আমি সেই দিকে মাথা ঘামাতে পারছি না। তবে এটাও সত্যি যে ভারত সরকার এই অতিমারির মধ্যেও আইপিএল আয়োজন করার সবুজ সঙ্কেত দিয়েছে, যাতে এই কঠিন অবস্থার মধ্যেও কিছু মানুষ বিনোদনের স্বাদ পায়’।

Advertisement

এখানেই থেমে না থেকে তিনি আরও লিখেছেন, ‘আমরা অনেক স্বচ্ছন্দ জীবন যাপন করি। তাই এমন কঠিন সময় এই দেশের সাধারণ মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আমার সতীর্থদের কাছে আবেদন করছি। সেই জন্য সামান্য অর্থ প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করলাম। কোভিডের বাড়বাড়ন্তের জন্য দেশের অনেক হাসপাতালে পরিমাণ মতো অক্সিজেন দেওয়া যাচ্ছে না। আশা করি এই সামান্য অর্থ কিছু মানুষের জীবন ফেরাতে কাজে লাগবে। ভারতকে বাঁচানোর জন্য সবাই একজোট হয়ে এগিয়ে আসুন।’

ভারতে করোনা আতঙ্কে একাধিক বিদেশি ক্রিকেটার আইপিএল থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। রবিচন্দ্রন অশ্বিনের পরিবার কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার জন্য ইতিমধ্যেই ক্রোড়পতি লিগকে বিদায় জানিয়েছেন। তবে ভারতে খেলতে এসে সেই দেশের পাশে দাঁড়িয়ে মহানুভবতার এক অনন্য নজির গড়লেন প্যাট কামিন্স।


Advertisement