পিছু হঠলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়? নাকি পিছু হঠলেন রত্না? শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্ট নির্দেশ দেয়, স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের কাছেই মেয়ে সুহানির পড়াশোনার খরচ তুলে দিতে হবে শোভনকে। তবে রত্না চট্টোপাধ্যায়ের মামলার খরচ চালানোর জন্য এককালীন অর্থ দেওয়ার বিষয় সংক্রান্ত রায় এ দিন স্থগিত রাখল হাইকোর্ট।

শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং রত্না চট্টোপাধ্যায়ের বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা চলছে আলিপুর আদালতে। বিচ্ছেদ মামলার খরচ চালানোর জন্য এককালীন তিরিশ লক্ষ টাকা খরচ দাবি করে আদালতের কাছে আর্জি জানিয়েছিলেন রত্না চট্টোপাধ্যায়। শুধুমাত্র মামলা চালানোর খরচই নয়, মেয়ে সুহানি চট্টোপাধ্যায়ের পড়ার খরচ বাবদ রত্না প্রতি মাসে দেড় লক্ষ টাকা দাবি করেছিলেন শোভনবাবুর কাছে। আলিপুর আদালত শোভনবাবুকে নির্দেশ দিয়েছিল স্ত্রীর মামলা চলাকালীন সেই টাকা দেওয়ার জন্য।

আলিপুর আদালতে বিচারক জানিয়েছিলেন, মেয়ে সুহানির খরচ বাবদ প্রতি মাসে মোট ৮০ হাজার টাকা খরচ। সেই টাকা সুহানির বাবা-মা দু’জন মিলেই দেবেন। অর্থাৎ শোভনকে প্রতি মাসে মেয়ের খরচ বাবদ ৪০ হাজার টাকা দিতে হবে। তবে মামলার খরচ বাবদ তিরিশ লক্ষ টাকা নয়, রত্নাকে এককালীন ৭০ হাজার টাকা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল আলিপুর আদালত।

আরও পড়ুন: আরও ৩৫০ ক্লাব আয়করের নজরে, একদম যাবেন না, বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর, সঙ্ঘাত তীব্র হওয়ার ইঙ্গিত​

নিম্ন আদালতের এই রায়কেই হাইকোর্টে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছিলেন প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেছিলেন, সুহানি চট্টোপাধ্যায়ের পড়ার খরচ বাবদ সব খরচ তিনি আলাদা আলাদা খাতেই দেবেন। প্রয়োজনে ৮০ হাজার টাকার বেশিই খরচ করবেন তিনি মেয়ের পড়াশোনা বাবদ। কিন্তু স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের হাতে টাকা দিতে অস্বীকার করেন শোভন। আদালতে এই সংক্রান্ত বিবৃতিও দিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন: মঞ্চে ‘লাল সেলাম’ বলে ফেলে জিভ কাটলেন সিপিএম ছেড়ে তৃণমূলে যাওয়া বিধায়ক, হেসে ফেললেন শুভেন্দু!

শুক্রবার হাইকোর্টে বিচারপতি সব্যসাচী ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চ জানায়, সুহানি চট্টোপাধ্যায়ের পড়ার খরচ বাবদ মাসিক ৪০ হাজার টাকা শোভন বাবুকে দিতে হবে, এবং তা রত্না চট্টোপাধ্যায়কেই দিতে হবে। এর ফলে মামলায় খানিকটা হলেও হালে পানি পেলেন রত্না।

মেয়ের সঙ্গে শোভন। ফাইল চিত্র।

হাইকোর্টের বেঞ্চ জানায়, সুহানির কাস্টডি এই মুহূর্তে তার মা রত্নার। সেই যুক্তিতেই সুহানির পড়ার খরচের টাকা রত্নাকেই দিতে হবে।

এদিকে, রত্নার মামলার খরচ চালানোর জন্য এককালীন যে ৭০ হাজার টাকা দেওয়ার কথা জানিয়েছিল নিম্ন আদালত। সেই সংক্রান্ত কোনও রায় এ দিন হাইকোর্ট দেয়নি। বিচারপতি সব্যসাচী ভট্টাচার্যের বেঞ্চ জানায়, রত্নার তরফে কোনও স্পষ্ট বিবৃতি নেই যে তিনি আর্থিকভাবে বিপন্ন। আর্থিকভাবে বিপন্ন না হলে কাউকে মামলা চালানোর খরচ দেওয়া হয় না। রত্নার স্পষ্ট বিবৃতি না থাকার কারণে এই সংক্রান্ত রায় স্থগিত রেখেছে হাইকোর্ট। ফলে সেদিক থেকে এ দিন স্বস্তিতে রইলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। 

 

(বাংলার রাজনীতি, বাংলার শিক্ষা, বাংলার অর্থনীতি, বাংলার সংস্কৃতি, বাংলার স্বাস্থ্য, বাংলার আবহাওয়া -পশ্চিমবঙ্গের সব টাটকা খবর আমাদের রাজ্য বিভাগে।)