• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রাজ্যে এক দিনে আক্রান্ত ১৫৩, হাওড়ার পর এ বার চিন্তা বাড়াচ্ছে হুগলিও

corona
প্রতীকী ছবি।

গত চারদিন ধরেই রাজ্যে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল কখনও একশোর কাছাকাছি, কখনও তার থেকে বেশি। রবিবার স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৫৩ জন যা এখনও পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ। গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন ১৪ জন।

স্বাস্থ্য দফতর প্রকাশিত পরিসংখ্যান অনুযায়ী নতুন করে আক্রান্তরা কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগণা এবং হুগলির বাসিন্দা। তবে স্বাস্থ্য দফতরের আশঙ্কা বাড়িয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় হুগলির সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫১ থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় এক লাফে ৪৭ বেড়ে হয়েছে ৯৮। তুলনায় হাওড়া, কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগনায় নতুন করে আক্রান্ত হওয়ার হার গত কয়েকদিনের তুলনায় আকস্মিক বৃদ্ধি পায়নি বলেই পরিসংখ্যানে ইঙ্গিত। স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, চন্দননগর লাগোয়া একটি অতি ঘনবসতি এলাকায় গত কয়েকদিনে পর পর কয়েকটি সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গিয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে মালদহেও। সূত্রের খবর, নতুন করে যাঁরা আক্রান্ত হয়েছেন ওই জেলায় তাঁদের প্রায় সবাই অজমের থেকে ফিরেছেন।

সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী, কলকাতায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৯৪৮ জন। তার মধ্যে সক্রিয় আক্রান্ত ৬১৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় যে ১৪ জন মারা গিয়েছেন তাঁদের মধ্যে ১০ জনেরই মৃত্যু হয়েছে কলকাতায়।
স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, কলকাতায় শনিবার রাত থেকে রবিবার সকাল পর্যন্ত কোভিড আক্রান্ত যাঁদের মৃত্যু হয়েছে তাঁদের মধ্যে রয়েছেন প্রখ্যাত ঐতিহাসিক হরি বাসুদেবন এবং আলিপুর আদালতের আইনজীবী গোবিন্দ পাল। অন্যদিকে স্বাস্থ্যকর্মী এবং পুলিশ বাহিনীতে ফের সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে। মানিকতলা থানার এক আধিকারিকের দেহে কোভিডের জীবাণু পাওয়া গিয়েছে। তিনি বাইপাস লাগোয়া একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি। অন্যদিকে স্কুল অফ ট্রপিকাল মেডিসিনে এক চিকিৎসক-সহ তিনজন আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: লোক নেই, মেডিক্যালে পিপিই পরে দাদার দেহ মর্গে নিতে হল ভাইকে!

নতুন আক্রান্তের সঙ্গে যোগ হয়েছে শহরের নতুন কনটেনমেন্ট এলাকাও। জোড়াবাগান ট্রাফিক গার্ডের পর এবার কনটেনমেন্ট জোনের তালিকায় কলকাতা পুলিশের বডিগার্ড লাইন। আলিপুর বডিগার্ড লাইনে রয়েছে সশস্ত্র পুলিশের ব্যারাক এবং বেশ কয়েকজন শীর্ষ পুলিশ কর্তার কোয়াটার্স। সূত্রের খবর, বডিগার্ড লাইনের মধ্যে একজন আক্রান্ত হয়েছেন যিনি পুলিশ কর্মী নন। একটি বেসরকারি হাসপাতালের সাফাই কর্মী ওই যুবক বডিগার্ড লাইনে থাকতেন।

আরও পড়ুন: মদের দোকানে ভিড় হচ্ছে, আর বিপন্ন শ্রমিকদের বেলায় নিয়ম! প্রশ্ন দেবের

স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রোগমুক্ত হয়েছেন ৪৫ জন। সব মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত রোগমুক্তের সংখ্যা ৪১৭ জন। সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী, রোগমুক্তির হার ১৯.২৫ শতাংশ থেকে বেড়ে হয়েছে ২১.৫১ শতাংশ।   

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন