• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বাকি পরীক্ষা বাতিল উচ্চ মাধ্যমিকে, ফল ৩১শে জুলাইয়ের মধ্যে

Exam
প্রতীকী ছবি।

সিবিএসই ও আইসিএসই বোর্ডের পথে হেঁটে উচ্চ মাধ্যমিকের বাকি তিনটি পরীক্ষা বাতিল করল রাজ্য। ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে ফল প্রকাশের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে। 

শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় শুক্রবার জানান, উচ্চ মাধ্যমিকের বাকি তিনটি পরীক্ষা হবে না। ২, ৬ এবং ৮ জুলাই এই পরীক্ষাগুলি হওয়ার কথা ছিল। যে সব বিষয়ের পরীক্ষা হয়ে গিয়েছে, সেগুলির মধ্যে প্রাপ্ত সর্বোচ্চ নম্বরের ভিত্তিতে বাতিল পরীক্ষাগুলির মূল্যায়ন করা হবে। এই ব্যবস্থা পছন্দ না হলে,  পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগও থাকবে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পরীক্ষা নেওয়া হবে।

সিবিএসই এবং আইসিএসই বোর্ড বৃহস্পতিবারই জানিয়ে দিয়েছিল, বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে তাঁরা দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ডের পরীক্ষাগুলো বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। শুক্রবার সুপ্রিম কোর্ট বোর্ডের সেই সিদ্ধান্তকে সিলমোহর দেয়। এর পরে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘‘সুপ্রিম কোর্টের রায়ের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ এবং বিশেষজ্ঞ কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী, শিক্ষা দফতর ২, ৬ এবং ৮ তারিখের পরীক্ষা বাতিল করল। যে পরীক্ষাগুলি হয়ে গিয়েছে, তার মধ্যে যে বিষয়ে সবচেয়ে বেশি নম্বর পেয়েছে পরীক্ষার্থী, সেই নম্বরের ভিত্তিতেই বাতিল পরীক্ষার নম্বর ধরা হবে। তবে মার্কশিট পাওয়ার পর ফলাফলের মূল্যায়নের ভিত্তিতে কোনও পরীক্ষার্থী যদি সন্তুষ্ট না হয়, তা সংসদকে লিখে জানাতে হবে।  করোনা পরিস্থিতি বদলালে উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের তৈরি বিধি অনুযায়ী বাকি পরীক্ষা নেওয়া হবে।’’

আরও পড়ুন: জুলাইয়ে ফল দুই বোর্ডের

শিক্ষামন্ত্রী জানান, করোনা পরিস্থিতির মধ্যে পরীক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষিত রেখে কী ভাবে পরীক্ষা নেওয়া যায়, তার পথ ভাবা হচ্ছিল। কিন্তু করোনা যে ভাবে ছড়াচ্ছে, তাতে পরীক্ষার্থী, শিক্ষক এবং শিক্ষাকর্মীদের স্বাস্থ্যকেই সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দেওয়া হচ্ছে। তাই করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই পরীক্ষা বাতিল করতে হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘‘ছাত্রদের স্বার্থকেই অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে। তাই উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদকে বলেছি ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে যেন উচ্চ মাধ্যমিকের ফল প্রকাশ হয়, সেটা দেখতে।’’  

উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের দেওয়া বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি পরিষ্কার করে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে তারা জানিয়েছে, যে বিষয়গুলির লিখিত পরীক্ষা হয়েছে, তার মধ্যে পরীক্ষার্থী যে বিষয়ে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছে, বাতিল পরীক্ষাগুলির জন্য সেই নম্বরকেই ধরা হবে। সব বিষয়ের লিখিত পরীক্ষার নম্বর এক নয় । সে ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ নম্বরের শতকরা হারে বাকি বিষয়ের নম্বর ধার্য হবে। 

আরও পড়ুন: ধর্মতলায় সভা হবে না ২১ জুলাই, ঘোষণা মমতার, হুঁশিয়ারি বিজেপি-কেও

উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদও জানিয়ে দিয়েছে, আগামী জুলাইয়ের মধ্যে পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের চেষ্টা করা হবে। সেই সঙ্গে সংসদ জানিয়ে দিয়েছে, যে পদ্ধতিতে মূল্যায়ন করা  হচ্ছে, তাতে কোনও পরীক্ষার্থী সন্তুষ্ট না হলে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর শুধু বাকি পরীক্ষার বিষয়গুলোতে পরীক্ষা দিতে পারবে। এবং সেই পরীক্ষায় যে নম্বর পাবে সেটাই চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই সেই পরীক্ষার দিনক্ষণ এবং নিয়মাবলি প্রকাশ করবে সংসদ।   

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন