কয়েক দিন ঝমঝমিয়ে বৃষ্টির কারণে ফুঁসছে পাহাড়ের নদীগুলি। বৃষ্টির জেরে ধস এবং গাছ ভেঙে উত্তরের জেলাগুলিতে ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। ব্যাহত হচ্ছে জনজীবন। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আপাতত বৃষ্টির হাত থেকে রেহাই মিলছে না। দার্জিলিং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং জেলায় আরও কয়েক দিন ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

উত্তরবঙ্গ ভাসলেও, দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির দেখাই নেই! পঞ্জাব থেকে উত্তরপ্রদেশ-বিহার হয়ে এ রাজ্যে উত্তরবঙ্গের উপর দিয়ে নাগাল্যান্ড পর্যন্ত একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা অবস্থান করছে। তার জেরে আগামী রবিবার উত্তরবঙ্গে বৃষ্টি চলবে। এ রাজ্য ছাড়াও সিকিম, অসম, মেঘালয়েও বৃষ্টি চলবে। এখনই বৃষ্টিতে ফুলেফেঁপে উঠেছে পাহাড়ের নদীগুলি। আগামী কয়েক দিন লাগাতার বৃষ্টি হলে আরও ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি হতে পারে। সে কারণে আবহাওয়া দফতর চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করেছে। শুধু পাহাড়ের জেলাগুলিতেই নয়, দুই দিনাজপুর এবং মালদহতেও এর প্রভাব পড়বে।

কলকাতাতে তেমন বৃষ্টি নেই। তবে আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে, বিহার, ঝাড়খণ্ডের উপরে আরও একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা তৈরি হচ্ছে, তার ফলে দক্ষিণেও কয়েক দিনে বৃষ্টি বাড়বে। কিছুটা বেশি বৃষ্টি হতে পারে দুই ২৪ পরগনা, মুর্শিদাবাদ এবং নদিয়া জেলায়। সমুদ্রে মৎসজীবীদের যেতে নিষেধ করা হয়েছে। গত কয়েক দিনে উত্তরের জেলাগুলিতে বৃষ্টি হলেও এ রাজ্যের প্রায় সব জেলাতেই বৃষ্টির ঘাটতি রয়েছে। বিশেষ করে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে।

আরও পড়ুন: উত্তরবঙ্গে লাগাতার বৃষ্টি, ধসে বন্যা পরিস্থিতি, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন সিকিম-ডুয়ার্সে

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।