Advertisement
২৮ জানুয়ারি ২০২৩
Voter List

১৭ বছর হলেই ভোটার হওয়ার আবেদন, ১৮-র অপেক্ষা আর নয়! নিয়ম বদলাল নির্বাচন কমিশন

আগের নিয়মে কোনও বছরের ১ জানুয়ারির মধ্যে বয়স ১৮ হলে তবেই ভোটার তালিকায় নাম তোলার জন্য আবেদন জানানো যেত। ফলে যাঁদের জন্ম ১ জানুয়ারির পরে, তাঁরা সারা বছর নাম তুলতে পারতেন না।

এ বার ১৭ বছরের ভোটার তালিকায় নাম তোলানোর আবেদন!

এ বার ১৭ বছরের ভোটার তালিকায় নাম তোলানোর আবেদন! প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৫ জানুয়ারি ২০২৩ ১৭:৩৮
Share: Save:

আর ১৮ নয়, এ বার ১৭ বছর বয়স হলেই ভোটার তালিকায় নাম নথিভুক্ত করতে আবেদন করা যাবে। ১৩তম জাতীয় ভোটার দিবসে ঘোষণা করল নির্বাচন কমিশন। বুধবার কলকাতায় ন্যাশনাল লাইব্রেরিতে ভোটার দিবস পালনের অনুষ্ঠানে এ রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক আরিজ আফতাব জানান, নতুন ভোটারদের জন্য প্রি-রেজিস্ট্রেশন সিস্টেম শুরু করা হয়েছে। ১৭ বছর বয়স হলেই রেজিস্ট্রেশন করা যাবে।

Advertisement

অর্থাৎ, ভোটার হওয়ার জন্য আগাম আবেদনের ব্যবস্থা শুরু করল কমিশন। এর ফলে ১৮ বছর হলেই আগাম আবেদনকারীরা ভোটার হয়ে যাবেন। নতুন ভোটারদের বাড়িতে পোস্ট অফিসের মাধ্যমে পৌঁছে যাবে ভোটার কার্ড। তাঁর কথায়, “নতুন ভোটারদের উৎসাহিত করতেই নির্বাচন কমিশনের এই পদক্ষেপ।”

এত দিন পর্যন্ত চলে আসা নিয়মে যে কোনও বছরের ১ জানুয়ারির মধ্যে বয়স ১৮ হলে তবেই ভোটার তালিকায় নাম তোলার জন্য আবেদন জানানো যায়। ফলে যাঁদের জন্মতারিখ ১ জানুয়ারির পরে, তাঁরা আর সারা বছর ভোটার তালিকায় নাম তুলতে পারেন না। বসে থাকতে হয় পরের বছরের জন্য। সেই সমস্যা দূর করতে চলতি বছর থেকেই বছরে ৪ বার ভোটার তালিকায় নামে সংযোজন ও সং‌শোধনের প্রক্রিয়া চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। এ বার ১৭ তেই নাম তোলার আবেদন জানানোর সুযোগ মিললে সেই সমস্যা পুরোপুরি মিটে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। এ প্রসঙ্গে ভার্চুয়াল মাধ্যমে দেশের নির্বাচন কমিশনার রাজীব কুমার জানিয়েছেন, নতুন ব্যবস্থায় সারা দেশে এখনও পর্যন্ত ১৭ লাখ যুবকের আবেদন জমা পড়েছে।

কমিশনার আরও জানিয়েছেন, নতুন ভোটার তালিকা অনুযায়ী এখন দেশে মোট ভোটারের সংখ্যা ৯৪ কোটি ৫০ লক্ষ। এর মধ্যে ১৮ থেকে ১৯ বছর বয়সি নতুন ভোটার রয়েছেন ১ কোটি ৪৩ লক্ষ। দেশে ২ কোটির বেশি ৮০ বছরের বেশি বয়সের ভোটার রয়েছেন। তাঁদের মধ্যে প্রায় ৩ লক্ষ ভোটারের বয়স শতবর্ষ পার হয়েছে! প্রতি বছরের মতো এ বছরও ভোটার দিবসে ২৩ জেলার সেরা নির্বাচনী আধিকারিকদের পুরস্কার দিয়েছে কমিশন। ভোটার তালিকায় উল্লেখযোগ্য কাজের জন্য পুরস্কৃত করা হয় দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলাশাসক সুমিত গুপ্তকে। ত্রুটিমুক্ত ভোটার তালিকার জন্য দক্ষিণ দিনাজপুরের জেলাশাসক বিজিন কৃষ্ণ এবং ভোটারদের ভোটদানে উৎসাহিত করার জন্য আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসক সুরেন্দ্রকুমার মীনাকে পুরষ্কার দেয় কমিশন।

Advertisement

বেশি করে ভোটদানের লক্ষ্যে দেশজুড়ে বিভিন্ন প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছিল নির্বাচন কমিশন। গান গেয়ে ভোটারদের উৎসাহিত করার জন্য দেশের মধ্যে হুগলির সঙ্গীতশিল্পী দোলা রায়কে ‘সেরা’ ঘোষণা করেছে কমিশন। বুধবার ন্যাশনাল লাইব্রেরিতে জাতীয় ভোটার দিবস অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব বিপি গোপালিকা, রাজ্যের অতিরিক্ত মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক সঞ্জয় বসু, বিজিত ধর।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.