Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

রোজ হাওড়া-দিঘা ট্রেন, চলবে টানা ৪২ দিন

উৎসবের মরসুমে রেল ২০ অক্টোবর থেকে ৩০ নভেম্বর দেশে মোট ৩৯২টি স্পেশাল ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত জানিয়েছে। তার মধ্যেই বাঙালির জন্য বড় সুখবর এনে

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ১৪ অক্টোবর ২০২০ ১৩:০৭
সাগর যাঁদের টানছে তাঁদের জন্য বড় খবর দিল রেল। ফাইল চিত্র

সাগর যাঁদের টানছে তাঁদের জন্য বড় খবর দিল রেল। ফাইল চিত্র

পুজোয় যাঁদের সাগর টানছে তাঁদের জন্য সুখবর। আগামী ২০ অক্টোবর থেকে প্রতিদিন হাওড়া থেকে দিঘা ট্রেন চালু করছে রেল। চলবে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত। রেলের পক্ষে এই ঘোষণা করা হলেও কখন সেই ট্রেন ছাড়বে সেই সময়সারণি এখনও জানানো হয়নি।

উৎসবের মরসুমে রেল ২০ অক্টোবর থেকে ৩০ নভেম্বর দেশে মোট ৩৯২টি স্পেশাল ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত জানিয়েছে। তার মধ্যেই বাঙালির জন্য বড় সুখবর এনে দিল দিঘাগামী ট্রেন চালু হওয়ার খবর। করোনা আবহে দীর্ঘদিন নিয়মিত ট্রেন চলাচল বন্ধ। এর ফলে বাঙালির প্রিয় সৈকত শহর অনেকদিন প্রায় একলা কাটিয়েছে। এবার সাগরের মজা নেওয়ার সুযোগটা এসে গেল।

Advertisement



রেলের ঘোষণা।

শুধু দিঘা নয়, পুরী যাওয়ার জন্যও এই সময়টায় প্রতিদিন ট্রেন চালাবে রেল। রেলের ঘোষণা মতো উৎসবের সময়ে বিশেষ ট্রেনগুলি কলকাতা, পটনা, বারাণসী, লখনউয়ের মতো নির্দিষ্ট কয়েকটি গন্তব্যে চলাচল করবে। এর মধ্যে ৬৬টি ট্রেন রয়েছে বাংলার জন্য। এগুলি হাওড়া, শিয়ালদহ, কলকাতা, সাঁতরাগাছি, নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন থেকে ছাড়বে। যাঁরা পুজোর সময়ে রাজ্যের মধ্যেই পাহাড়ে বা জঙ্গলে যেতে চান তাঁদের জন্যও সুখবর রয়েছে। শিয়ালদহ থেকে নিউ জলপাইগুড়ি ও নিউ আলিপুরদুয়ারের ট্রেন চলবে ২০ অক্টোবর থেকে ৩০ নভেম্বর। খুব তাড়াতাড়ি রেল এই সব ট্রেনের সময়সারণি প্রকাশ করবে বলে জানিয়েছে। তবে এগুলি যেহেতু স্পেশাল ট্রেন তাই বিশেষ ভাড়াও প্রযোজ্য হবে। যাত্রীরা কোন শ্রেণিতে টিকিট কাটছেন, তার ভিত্তিতে মেল বা এক্সপ্রেস ট্রেনের তুলনায় ১০-৩০ শতাংশ বেশি ভাড়া গুনতে হবে।

করোনা আবহে এবার পুজোয় ঠাকুর দেখার সুযোগ খুব বেশি মেলার সম্ভাবনা খুবই কম। চিকিৎসক থেকে প্রশাসন সকলেই এবার সংক্রমণ রুখতে ভিড় এড়িয়ে পুজো কাটাতে বলছেন। এমন পরিস্থিতিতে বিশেষ ট্রেনগুলি কলকাতার চাপ অনেকটাই কমিয়ে দিতে পারে। অন্য দিকে, একটা চিন্তা থেকেই যাচ্ছে, ট্রেন চালু হয়ে যাওয়ায় দিঘা-সহ বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রে ভিড় বেড়ে যেতে পারে।

আরও পড়ুন: পুজোয় ৩৯২ স্পেশাল ট্রেন, বাংলা পেল ৬৬, রইল তালিকা

আর সেই চিন্তা সবচেয়ে বেশি দিঘা নিয়ে। কারণ, এই সৈকত শহর একা নয়। একই সঙ্গে উচ্চারিত হয় মন্দারমণি, তাজপুর-সহ অনেক জায়গা। এখন ট্রেন চালু হয়ে যাওয়া যা মনে করা হচ্ছে তাতে পুজোয় এই সব জায়গা 'হাউসফুল' হয়ে যেতে পারে। তাই ট্রেনের সুবিধা মেলায় বেড়াতে গেলেও করোনা সংক্রমণ নিয়ে সতর্ক থাকতেই হবে।

আরও পড়ুন

Advertisement