Advertisement
১০ ডিসেম্বর ২০২২
Bratya Basu

রাজ্যের বন্ধ স্কুল খোলার জন্য নয়া নীতি আনছে সরকার, বিধানসভায় জানালেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু

বিধানসভায় শিক্ষক নিয়োগ প্রসঙ্গেও বিধানসভায় মন্তব্য করেছেন ব্রাত্য বসু। তিনি জানান, শূন্যপদ অনুযায়ী নিয়োগ করা হবে। তার জন্য স্কুলগুলোর কাছে তথ্য চাওয়া হয়েছে। কোথাও পদ শূন্য থাকবে না।

বিভিন্ন স্কুল বন্ধ নিয়ে সরকারের পরিকল্পনার কথা জানালেন শিক্ষামন্ত্রী।

বিভিন্ন স্কুল বন্ধ নিয়ে সরকারের পরিকল্পনার কথা জানালেন শিক্ষামন্ত্রী। —ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৬:৪৯
Share: Save:

পশ্চিমবঙ্গের বন্ধ স্কুলগুলো খোলার জন্য নতুন নীতি আনবে সরকার। মঙ্গলবার বিধানসভায় জানালেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু।

Advertisement

বিধানসভায় প্রশ্নোত্তর পর্বে শিক্ষামন্ত্রী জানান, রাজ্যের বিভিন্ন জেলাশাসকের কাছে তাঁদের নিজ নিজ জেলার স্কুলগুলির স্টেটাস রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে। কোন স্কুলের কী অবস্থা, পড়ুয়া সংখ্যা কত, শিক্ষক-পড়ুয়ার অনুপাত ইত্যাদি বিষয়ে তথ্য নেওয়া হচ্ছে। এই রিপোর্ট আসবে সরাসরি তাঁর কাছে। তিনি ওই রিপোর্ট খতিয়ে দেখে সেটি পাঠাবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে। এর পর প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করবে সরকার। পশ্চিমবঙ্গে বিভিন্ন স্কুল বন্ধ প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘‘বিভিন্ন স্কুল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। সার্ভে করছি। কী কারণে স্কুল বন্ধ হচ্ছে, তা জানার চেষ্টা চলছে।’’

স্কুল আছে। একটা স্কুলের যে সমস্ত পরিকাঠামো লাগে, সব আছে। কিন্তু পড়ুয়া নেই। আবার কোথাও পড়ুয়া আছে, শিক্ষক নেই। সম্প্রতি এই সব কারণে বিভিন্ন জেলায় স্কুল বন্ধ হয়ে যাওয়ার খবর মিলেছে। ওই স্কুলগুলি পুনরায় খোলার ব্যাপারে কী কী পদক্ষেপ করা যায়, তা নিয়ে সরকার চিন্তাভাবনা করছে বলে বিধানসভায় স্পষ্ট করেছেন ব্রাত্য। তাঁর কথায়, ‘‘শহর আর শহরতলিতে একাধিক স্কুল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। সরকার একাধিক সার্ভে করছে। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ছাত্র সংখ্যার অপ্রতুলতার জন্য বন্ধ হচ্ছে।’’

পাশাপাশি শিক্ষক নিয়োগ প্রসঙ্গেও বিধানসভায় মন্তব্য করেছেন ব্রাত্য। তিনি বলেন, ‘‘ছ’বছর পর আদালতের নির্দেশে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। একটা নিয়ম করা হচ্ছে। শূন্যপদ অনুযায়ী নিয়োগ করা হবে। তার জন্য তালিকা তৈরি হচ্ছে। বিজ্ঞান, কলা এবং বাণিজ্য— কোনও ক্ষেত্রেই শিক্ষক নিয়োগ আর বাকি থাকবে না। কোথায় কত শূন্যপদ রয়েছে, তার তালিকা চাওয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট স্কুলগুলো থেকে।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.