Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৪ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

পুজোর মুখে বন্ধ পাঁচ বরফ কারখানা

এ দিন সকালে কারখানাগুলিতে পড়ে যায় তালা। কর্মচারীদের অভিযোগ, কারখানা বন্ধ করে দেওয়ার ব্যাপারে আগে কোনও  নোটিস দেয়নি মালিকপক্ষ।

নিজস্ব সংবাদদাতা
রামনগর ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০২:৪৫
Save
Something isn't right! Please refresh.
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

Popup Close

শ্রমিকদের বেতন বৃদ্ধির দাবি নিয়ে চাপানউতোর চলছিলই। এই পরিস্থিতিতে পুজোর আগে রামনগরে বন্ধ হয়ে গেল পাঁচটি বরফ কারখানা। শনিবার সকালে রামনগর-১ ব্লকের ফতেপুর এলাকায় ওই কারখানাগুলি দরজায় তালা ঝুলিয়ে দেন মালিকপক্ষ।

স্থানীয় সূত্রের খবর, রামনগর-১ ব্লকের ফতেপুর এলাকায় স্থানীয় কয়েকজনের মালিকানায় পাঁচটি বরফ কারখানা রয়েছে। দিঘা মোহনা থেকে কারখানাগুলির দূরত্ব মাত্র ছয় কিলোমিটার। বছরের আট মাস বরফ উৎপাদন হলেও বছরের বাকি সময়েও কর্মচারীদের বেতন দেওয়া হত বলে কারখানা সূত্রের খবর। কয়েক মাস আগে কারখানা কর্তৃপক্ষের কাছে বেতন বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছিলেন শ্রমিকেরা। তাঁদের অভিযোগ, সে সময় বরফের উৎপাদনে কমিশন ভিত্তিক কাজ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তাতে কর্মচারীরা রাজি হচ্ছিলেন না।

এই পরিস্থিতিতে এ দিন সকালে কারখানাগুলিতে পড়ে যায় তালা। কর্মচারীদের অভিযোগ, কারখানা বন্ধ করে দেওয়ার ব্যাপারে আগে কোনও নোটিস দেয়নি মালিকপক্ষ। স্বপন মাইতি নামে এক কর্মচারী বলেন, ‘‘বেশ কিছুদিন ধরে কমিশনের ভিত্তিতে কাজ করার প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছিল। কিন্তু তাতে আমরা রাজি হইনি। এ দিন দেখি কারখানা বন্ধ।’’

Advertisement

বরফ কারখানা মালিক সংগঠনের পক্ষে প্রসাদ ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘গত দু-বছর ধরে সমুদ্রের মাছের উৎপাদন কমে গিয়েছে। তাই বরফ ব্যবসায় মন্দা চলছে। তারপরও শ্রমিকেরা অযৌক্তিকভাবে বেতন বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে আসছিলেন। তাই ব্যবসা চালাতে না পেরে কারখানা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’’ কারখানার মালিক পক্ষের অভিযোগ, স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের মদতে কর্মচারীরা আন্দোলন চালাচ্ছিলেন।

আন্দোলনে শাসকদলের শ্রমিক সংগঠনের জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেছে আইএনটিটিইউসি। আইএনটিটিইউসি’র জেলা কার্যকরী সভাপতি শিবনাথ সরকার বলেন, ‘‘এ ধরনের আন্দোলনে কোনও শ্রমিক সংগঠনকে আমাদের তরফে অনুমোদন দেওয়া হয়নি।’’ বরফ কারখানার অচলাবস্থার খবর পেয়ে এলাকার তৃণমূল নেতা তথা জেলা পরিষদের সভাধিপতি দেবব্রত দাস বলেন, ‘‘মালিক এবং কর্মচারীদের নিয়ে একসঙ্গে বসে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চলছে।’’

দিদিকে বলো

পাঁশকুড়া: পাঁশকুড়ার চৈতন্যপুর ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার উদয়পুরে দু'দিন ব্যাপি অনুষ্ঠিত হল 'দিদিকে বলো' কর্মসূচি। কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দেন যুবনেতা সুজিত কুমার রায়। পাঁশকুড়ায় ১১ নম্বর ওয়ার্ডেও সুকুমার ভুঁইয়ার নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয় ‘দিদিকে বলো’। দুটি কর্মসূচিতেই যোগ দেন এলাকার শতাধিক তৃণমূল কর্মী সমর্থক।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement