Advertisement
১৬ এপ্রিল ২০২৪
Car accident

মত্তের হাতে স্টিয়ারিং! বিয়ে করতে যাওয়ার পথে মুর্শিদাবাদে বরের গাড়ির ধাক্কায় আহত ১১ বরযাত্রী

বরের গাড়িতে উঠে পড়ে ইঞ্জিন চালু করে দেন এক মত্ত। তার পর তিনি স্টিয়ারিংও ঘোরাতে থাকেন। বেকায়দায় চাপ পড়ে তীব্র বেগে পিছোতে শুরু করে গাড়ি। তখনই ১১ বরযাত্রীকে ধাক্কা মারে গাড়িটি।

representative image

— প্রতীকী চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
সুতি শেষ আপডেট: ০৫ মার্চ ২০২৪ ১৬:০৪
Share: Save:

সকলে মিলে বরযাত্রী যাচ্ছিলেন। হঠাৎ বরের গাড়ি এসে ধাক্কা দিল বরযাত্রীদের। গুরুতর জখম ১১জন। তড়িঘড়ি উদ্ধার করে তাঁদের নিয়ে যাওয়া হয় মুর্শিদাবাদ জেলার জঙ্গিপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাঁদের মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। গাড়িচালক এবং তাঁর সহকারী, দু’জনেই মত্ত অবস্থায় ছিলেন বলে জানা গিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, সুতি থানার কাদুয়ায় দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। সোমবার রাত সাড়ে ১০টা নাগাদ সুতির কাদুয়ায় বিয়ে করতে যাচ্ছিলেন বর। সঙ্গে ছিলেন বরযাত্রীরা। স্থানীয়দের অভিযোগ, বর যে গাড়িতে বসেছিলেন সেই গা়ড়িতে উঠে পড়েন এক মত্ত ব্যক্তি। স্টিয়ারিং ঘোরাতে ঘোরাতেই ইঞ্জিন চালু হয়ে যায়। সেই সময় কিছুই না জেনে মত্ত ব্যক্তি গাড়ি ব্যাক গিয়ারে দেন। তীব্র বেগে পিছিয়ে গিয়ে বরের গাড়ি সরাসরি ধাক্কা মারে বরযাত্রীদের। কয়েক জন গাড়ির তলায় ঢুকে যান। কিছু বুঝে ওঠার আগেই গুরুতর আহত হন ১১ জন বরযাত্রী। এই ঘটনায় এলাকায় হইচই পড়ে যায়। আহত বরযাত্রীদের সেখান থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসা হয় জঙ্গিপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। তাঁদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাঁদের সঙ্গে সঙ্গে স্থানান্তরিত করানো হয় মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী রাহুল মণ্ডল বলেন, ‘‘বরযাত্রীর সঙ্গে আমরা সবাই যাচ্ছিলাম। হঠাৎ একটি টাটা সুমো নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ভিড়ের মধ্যে ঢুকে পড়ে অনেক বরযাত্রীকে ধাক্কা দেয়। ঘটনায় বেশ কয়েক জন আহত হয়েছেন।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Marriage Bridegroom
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE