Advertisement
০১ ডিসেম্বর ২০২২
Coronavirus in West Bengal

খুলছে স্কুল, ভয় কাটাতে কথা

সংক্রমণ কমে এলেও স্কুল খোলা নিয়ে আতঙ্ক রয়ে গিয়েছে অনেক অভিভাবকেরই।

পরীক্ষাগার ঝাড়পোঁছ। কৃষ্ণনগর কলেজিয়েট স্কুলে। ছবি: সুদীপ ভট্টাচার্য।

পরীক্ষাগার ঝাড়পোঁছ। কৃষ্ণনগর কলেজিয়েট স্কুলে। ছবি: সুদীপ ভট্টাচার্য।

সৌমত্র সিকদার
শেষ আপডেট: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ০৫:৫৫
Share: Save:

প্রায় ১১ মাস পরে কাল, শুক্রবার থেকে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু হতে চলেছে। তার জন্য গত দু’দিন ধরে চাকদহ ব্লকের বিভিন্ন বিদ্যালয়ে অভিভাবকদের নিয়ে সভা করেছেন বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। অনেক বিদ্যালয়ে আজ, বৃহস্পতিবার সভা করা হবে বলেও জানা গিয়েছে।

Advertisement

প্রায় সর্বত্রই প্রথমে শিক্ষকেরা বক্তৃতা করেছেন। তার পরে বলতে শুরু করেছেন অভিভাবকেরা। অনেক ক্ষেত্রেই দেখা গিয়েছে, সংক্রমণ কমে এলেও স্কুল খোলা নিয়ে আতঙ্ক রয়ে গিয়েছে অনেক অভিভাবকেরই। অনেকে বলেছেন, বিকাল ৪টে পর্যন্ত ক্লাস না হয়ে আগে শেষ হলে ভাল হয়। অনেকে জানতে চেয়েছেন, কী ভাবে পড়ুয়াদের স্কুলে আসতে হবে, কী ভাবে ক্লাস করতে হবে। ক্লাস শুরু হওয়ার দিন বিষয়গুলি পড়ুয়াদের সামনে শিক্ষকরা বিশদে বললে ভাল হয়, তাতে তারা গুরুত্ব দেবে বলেও জানিয়েছেন অনেক অভিভাবক।

বুধবার থেকে দু’দিন ধরে চাকদহ রামলাল বিদ্যপীঠের (উচ্চ মাধ্যমিক) অভিভাবকদের নিয়ে সভা হয়েছে। বিভিন্ন জায়গা থকে অভিভাবকেরা হাজির হয়েছিলেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রিপন পাল বলেন, “সরকারি নির্দেশ মেনে আমরা পঠনপাঠন শুরু করতে চলেছি। বিদ্যালয়ের সর্বত্র জীবাণুনাশক স্প্রে করা হয়েছে। কিন্তু অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলে মনে হয়েছে, তাঁরা একটু আতঙ্কিত। তাঁদের বলেছি, ‘সতর্ক থাকুন কিন্তু অযথা আতঙ্কিত হবেন না’। পড়ুয়ারা কী ভাবে ক্লাসে আসবে, সে সব বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।”

কামালপুর আদর্শ বিদ্যাপীঠের (উচ্চ মাধ্যমিক) প্রধান শিক্ষক রমেনচন্দ্র ভাওয়াল বলেন, “আমরা বৃহস্পতিবার অভিভাবক এবং স্কুলের সকলের সঙ্গে আলোচনা করব। কেউ যাতে অযথা আতঙ্কিত না হয়, সে দিকে আমাদের নজর দিতে হবে।”

Advertisement

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.