Advertisement
২৯ মার্চ ২০২৩
Pradhan Mantri Aawas Yojna

আবাসের ঘর পেতে দিতে হবে ৫০ হাজার টাকা! অভিযোগ ঘিরে থানাপুলিশ মালদহের গ্রামে

মালদহের বামনগোলার বাসিন্দা উর্মিলা ব্যাপারীর ছেলে বিপ্লব ব্যাপারীর অভিযোগ আবাসর ঘরের জন্য তাঁর কাছে ৫০ হাজার টাকা চাওয়া হয়েছে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল।

TMC leader allegedly demanded bribe for Pradhan Mantri Awas Yojana

বিপ্লব ব্যাপারী। — নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
মালদহ শেষ আপডেট: ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ১৪:০৮
Share: Save:

আবাস যোজনার ঘর পেতে হলে দিতে হবে ৫০ হাজার টাকা। তা দিতে অস্বীকার করায় এক যুবককে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূলের পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামীর বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের বামনগোলা থানার তেঁতুলমোড়া এলাকায়। এই নিয়ে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছেন অভিযোগকারী। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

Advertisement

মালদহের বামনগোলার মদনাবতী গ্রাম পঞ্চায়েতের তেঁতুলমোড়ার বাসিন্দা উর্মিলা ব্যাপারীর ছেলে বিপ্লব ব্যাপারীর দাবি, তাঁর মায়ের নাম রয়েছে আবাস যোজনার তালিকায়। তাঁর অভিযোগ, সেই ঘর পেতে তাঁর কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন মদনাবতী পঞ্চায়েতের প্রধানের স্বামী পিন্টু রায়। তাঁর আরও অভিযোগ, সেই টাকা দিতে অস্বীকার করায় মারধর করা হয় তাঁকে। থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে আবার তাঁর উপর হামলা হয় বলে অভিযোগ। পরে বিষয়টি নিয়ে তিনি পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অবশ্য, তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত পিন্টু। তাঁর সাফাই, ‘‘আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।’’ তবে বিষয়টি নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপান-উতোর। বিজেপির দক্ষিণ মালদহ সাংগঠনিক জেলার সাধারণ সম্পাদক অম্লান ভাদুড়ি বলেন, ‘‘জেলা জুড়ে এই ভাবে কাটমানি নেওয়া হচ্ছে। প্রতিবাদ করলে মারধর করা হচ্ছে।’’

অভিযোগ শুনে তৃণমূল নেতা কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরী বলেন, ‘‘দল কাউকে টাকা তোলার বা মারধর করার অনুমতি দেয়নি। এই নিয়ে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। পুলিশ আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে।’’ বিপ্লবের অভিযোগের তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন মালদহের পুলিশ সুপার প্রদীপ কুমার যাদব।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.