Advertisement
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Anubrata Mondal

অনুব্রতের বিরুদ্ধে সিবিআইয়ের কাছে সাক্ষ্য দিয়েছেন? শতাব্দীর জবাব, ‘আমার মজা লাগছে শুনতে’

সিবিআইয়ের সাপ্লিমেন্টরি বা অতিরিক্ত চার্জশিটে অনুব্রতের বিরুদ্ধে যে ৯৫ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে, তার ৪৬ নম্বরে নাম রয়েছে শতাব্দীর। সিবিআই সূত্রের খবর, শতাব্দীর বয়ানও রেকর্ড করা হয়েছে।

অনুব্রতের পাশে থাকার বার্তা দিলেন শতাব্দী।

অনুব্রতের পাশে থাকার বার্তা দিলেন শতাব্দী। —ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
রামপুরহাট শেষ আপডেট: ১৪ অক্টোবর ২০২২ ১৪:২১
Share: Save:

বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের গ্রেফতারির পর জেলায় বড় করে সভা করেছিলেন বীরভূমের সাংসদ শতাব্দী রায়। কর্মীদের উদ্দেশে বলেছিলেন, এই সময়ে অনুব্রতের পাশে থাকতে হবে সবাইকে। কিন্তু গরু পাচার মামলায় ধৃত অনুব্রতের বিরুদ্ধে তিনিই নাকি সাক্ষী দিয়েছেন। এ নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে শোরগোল রাজ্য রাজনীতিতে। শুক্রবার বোলপুর থেকে শতাব্দী দাবি করলেন, দলের জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে কোনও সাক্ষী দেননি।

Advertisement

গরু পাচার-কাণ্ডে বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে সাক্ষী দিয়েছেন বীরভূমের তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায়। এমনটাই বলা হয়েছে সিবিআইয়ের চার্জশিটে। সাপ্লিমেন্টারি বা অতিরিক্ত চার্জশিটে অনুব্রতের বিরুদ্ধে যে ৯৫ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে, তার ৪৬ নম্বরে নাম রয়েছে শতাব্দীর। সিবিআই সূত্রের খবর, শতাব্দীর বয়ানও রেকর্ড করা হয়েছে। অন্য দিকে, অনুব্রত এবং শতাব্দীর ‘সুসম্পর্কের’ কথা সর্বজনবিদিত। তাই জল্পনা তুঙ্গে ওঠে। তবে এই যাবতীয় জল্পনায় জল ঢাললেন শতাব্দী। তাঁর দাবি অনুব্রতের বিরুদ্ধে কোনও বয়ান সিবিআইয়ের কাছে দেননি। শতাব্দী বলেন, ‘‘আমি সাক্ষ্য দিতে যাব কেন?’’ সাংসদের সংযোজন, ‘‘ওরা মহাভারত রচনা করছে করুক না। আমার মজা লাগছে শুনতে।’’

শুক্রবার রামপুরহাটে বিজয়া সম্মিলনীর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসেছিলেন শতাব্দী। সেখানে অনুব্রতকে নিয়ে তাঁর মন্তব্য, ‘‘ওকে সঙ্গে নিয়ে দল চলছে। আগামীতেও চলবে।’’ পাশাপাশি সাক্ষী প্রসঙ্গে বলেন, ‘‘যখন কোর্টে যাবে, তখন জেনে নিও।’’ আবার তাঁর সাক্ষ্যদান প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘‘আমি এ বিষয়ে কোনও উত্তর দেব না।’’ ঘুরিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্ন করেন, ‘‘আপনারা কী জানেন বলুন। আদালতে যাক বিষয়টি। তার পরে দেখে নেবেন।’’

অন্য দিকে, মঞ্চ থেকে বিজেপিকে বেশ কড়া ভাষায় আক্রমণ করতে শোনা যায় শতাব্দীকে। জনতার উদ্দেশে তাঁর বার্তা, ‘‘আপনারা যা দেখছেন, তার মধ্যে ৯০ শতাংশই মিথ্যে। তাই মিথ্যায় কান দেবেন না। এখনও পর্যন্ত মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তৃণমূলের পাশে রয়েছে। পাশেই থাকবে।’’ বোলপুরের তিন বারের সাংসদের চ্যালেঞ্জ, ‘‘এখন নির্বাচন হলেও বিরোধীরা এখানে একটি আসনও পাবেন না।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.