×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২১ জুন ২০২১ ই-পেপার

‘আবদার’ মেনে অ্যামাজনের ডেলিভারি দিতে আসা মহিলাকে কী করতে হল দেখুন

সংবাদ সংস্থা
ডোভার, আমেরিকা ২৫ জুন ২০২০ ১৪:৫২
ফেসবুক থেকে নেওয়া ছবি।

ফেসবুক থেকে নেওয়া ছবি।

প্যাকেজ ডেলিভারি দিতে গিয়ে এক মহিলাকে অদ্ভুত কাজ করতে হল। আর সেই গোটা ঘটনা ক্যামেরায় ধরা পড়ে। পরে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। আর ওই মহিলাকে এমন কাজ করাতে হওয়ার জন্য অ্যামাজনের কাছে ক্ষমা চাইলেন ওই ক্রেতা। যদিও ভুলটা তাঁর ছিল না।

আমেরিকার ডেলাওয়ারের বাসিন্দা লিন ডেবোরা স্ট্যাফিয়েরি নামে এক মহিলা সম্প্রতি ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছেন। সেখানে একটি ভিডিয়ো ও একটি স্ক্রিন শট রয়েছে। ভিডিয়োটি একটি বাড়ির দরজার আই-হোলের মধ্যে দিয়ে বা একটু নীচে লাগানো কোনও নজরদারি ক্যামেরা থেকে রেকর্ড করা হয়েছে।

ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, এক মহিলা হাতে একটি বড় পার্সেল নিয়ে এগিয়ে আসছেন দরজার দিকে। মুখে মাস্ক, হাতে গ্লাভস। পার্সেলটি সামনে রেখে তিন বার টোকা দেন দরজায়, তারপর জোরে ‘আবরা কা ডাবরা’ চিৎকার করে ছুটে ডেলিভারি ভ্যানের দিকে পালিয়ে যান।

Advertisement

আরও পড়ুন: আট মাসের শিশুকে কেউ এ ভাবে সুইমিং পুলে ফেলে দিতে পারে!

ভাবছেন এমনটা তো হওয়ার কথা নয়, কেন ডেলিভারি দিতে আসা ওই মহিলা এমন করলেন। আসলে অ্যামাজনে এই আর্ডারটি দেওয়ার সময় এই কাজ করতে বলা হয়েছিল। অ্যামাজনে ডেলিভারির অর্ডার নেওয়ার সময় একটি কলাম থাকে, “ঠিকানা খোঁজে পাওয়ার জন্য বিশেষ কোনও নির্দেশ প্রয়োজন কি?” আর এই অর্ডার দেওয়ার সময় সেই কলামে লেখা হয়, “না, তবে দরজায় তিন বার টোকা দিয়ে যত জোরে সম্ভব চিত্কার করে আবরা কা ডাবরা বলে দ্রুত ছুটে পালাতে হবে।”

আরও পড়ুন: সুন্দর ছবির পিছনের রহস্য সামনে আনলেন ইনস্টাগ্রাম ইনফ্লুয়েন্সার

শুনতে অদ্ভুত লাগলেও ডেলিভারি দিতে আসা ওই মহিলা ক্রেতার এই আবদার মিটিয়েছেন। আর সেই ভিডিয়োই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। পরে লিন তাঁর ফেসবুকের পোস্টে জানিয়েছেন, “অর্ডার দেওয়ার সময় তাঁর ছোট ছেলে এই কলামে এমন কথা লিখে দিয়েছিল। এর জন্য তিনি ক্ষমাপ্রার্থী।” সেই সঙ্গে ওই প্যাকেট ডেলিভারি দিতে আসা ওই মহিলাকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন লিন। আর নেটাগরিকরা বিষয়টিতে বেশ মজাই পেয়েছেন।

দেখুন সেই ভিডিয়ো:


Advertisement