×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৪ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

জুম মিটিংয়ের সময়ই সেক্রেটারির সঙ্গে যৌনতা সরকারি আধিকারিকের, যেতে পারে চাকরি

সংবাদ সংস্থা
মানিলা২৮ অগস্ট ২০২০ ১৬:০০
জুম মিটিংয়ের মধ্যেই  যৌনতা! ছবি ভিডিয়ো থেকে নেওয়া।

জুম মিটিংয়ের মধ্যেই যৌনতা! ছবি ভিডিয়ো থেকে নেওয়া।

লকডাউনের সময় ভার্চুয়াল মিটিং বা যোগাযোগের কাজে ব্যাপক হারে ব্যবহৃত হচ্ছে জুম অ্যাপ। কিন্তু জুমের মাধ্যমে মিটিং করার সময় অসাবধানতার জন্য বিপত্তিও ঘটেছে এদিক-ওদিক। সম্প্রতি এ রকমই একটি ঘটনা ঘটেছে ফিলিপিন্সে। সেখানে জুমে মিটিং করার সময়ই নিজের সেক্রেটারির সঙ্গে যৌনতায় মেতেছিলেন এক সরকারি আধিকারিক। সেই ঘটনার ভিডিয়ো এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে। তা হতেই শাস্তির মুখে ওই সরকারি আধিকারিক।

ফিলিপিন্সের কাভিট প্রদেশের ফাতিমা ডজ গ্রামের কাউন্সিলের ক্যাপ্টেন জেসাস এস্টিল। ২৬ অগস্ট জুমের মাধ্যমে কাউন্সিলের মিটিং করছিলেন তিনি। সেই মিটিংয়ে উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলের অন্য সদস্যরাও। সেই মিটিং চলার সময়ই সেক্রেটারির সঙ্গে যৌনতায় মেতেছিলেন এস্টিল। কাউন্সিলেরই এক সদস্য তা রেকর্ড করে ছড়িয়ে দেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

সেই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, মিটিং করছিলেন এস্টার। তার পর হঠাৎ উঠে গেলেন ঘরের দরজার কাছে। কিন্তু ল্যাপটপের ক্যামেরা তখনও চলছে। দরজার কাছে গিয়ে এক মহিলার সঙ্গে শুরু করলেন যৌনতা। তার কিছুক্ষণ পর ফের যোগ দিলেন মিটিংয়ে। জানা গিয়েছে, ওই মহিলা এস্টারের সেক্রেটারি হিসাবে কাজ করেন।  

Advertisement

এই ভিডিয়ো সামনে আসতেই এস্টারের বিরুদ্ধে পিটিশন জমা দেন গ্রামবাসীরা। সোশ্যাল মিডিয়ার পাশাপাশি স্থানীয় মিডিয়াতেও বিষয়টি নিয়ে চর্চা চলে। তার পরই তাঁকে চাকরি থেকে সাসপেন্ড করা হয়। ঘটনা নিয়ে সেখানকার সামন ও কমপ্লেন বিভাগের প্রধান রিচার্ড জেরোনিমো বলেছেন, ‘‘এটা কোনও সাধারণ অপরাধ নয়, মারাত্মক অপরাধ। তাঁর কড়া শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। স্টাফ মেম্বারদের অনুরোধও গ্রাহ্য করা হবে না।’’ স্থানীয প্রশাসন জানিয়েছে, খুব শীঘ্রই ওই পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে এস্টারকে। যদিও এই ঘটনার পর থেকে এস্টার ও তাঁর সেক্রেটারি অফিসে আসা বন্ধ করে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন: লরার ভিতরটা কেমন? দেখাল আমেরিকার হ্যারিকেন হান্টারের পোস্ট করা ভিডিয়ো

আরও পড়ুন: ২৩ কোটি ডলারের শেয়ার কর্মীদের বিলিয়ে দিলেন মার্কিন উদ্যোগপতি

Advertisement