Advertisement
১৮ জুন ২০২৪
South China Sea

দক্ষিণ চিন সাগর দখলে সক্রিয় বেজিং প্রবালপ্রাচীরে বানাচ্ছে দ্বীপ, দেখাল উপগ্রহচিত্র

দক্ষিণ চিন সাগরের ওই বিতর্কিত অঞ্চলকে ‘নিজেদের’ বলে দাবি করে ব্রুনেই, তাইওয়ান, ফিলিপিন্স, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনামের মতো দেশও। তাদের সঙ্গে বিরোধ রয়েছে চিনের।

দক্ষিণ চিন সাগরে কৃত্রিম দ্বীপ বানাচ্ছে পিপলস লিবারেশন আর্মি।

দক্ষিণ চিন সাগরে কৃত্রিম দ্বীপ বানাচ্ছে পিপলস লিবারেশন আর্মি। ছবি: ম্যাক্সার।

সংবাদ সংস্থা
ওয়াশিংটন শেষ আপডেট: ২১ ডিসেম্বর ২০২২ ২২:২৬
Share: Save:

আন্তর্জাতিক মহলের বিরোধিতায় কর্ণপাত না করে দক্ষিণ চিন সাগরে ‘জমি’ জবরদখল চালিয়ে যাচ্ছে বেজিং। এ বার ম্যাক্সারের (উপগ্রহের সাহায্যে তোলা মানচিত্র সরবরাহকারী সংস্থা) তোলা উপগ্রহচিত্রেও তার প্রমাণ মিলল। সেখানে দেখা যাচ্ছে প্রবালপ্রাচীরে ঘেরা ছোট্ট পাথুরে দ্বীপের এলাকা কৃত্রিম ভাবে বাড়িয়ে সেটিকে সামরিক ঘাঁটি বানানোর উপযোগী করে তোলা হচ্ছে।

দক্ষিণ চিন সাগরের বিতর্কিত স্প্রাটলি দ্বীপপুঞ্জের অন্তর্গত মিসচিফ রিভ, গাভেন রিফস, সুবি রিফ, কুয়ার্টেরন রিফ, হিউজ রিফের মতো কৃত্রিম দ্বীপগুলিতে ইতিমধ্যেই চিনা ফৌজ পোতাশ্রয়, হেলিপ্যাড এমনকি বিমানঘাঁটি বানিয়ে ফেলেছে। ম্যাক্সারের তোলা ওই ছবিতে দেখা যাচ্ছে, চিনা জাহাজ সেখানে মাটি তুলে কৃত্রিম দ্বীপ তৈরি করছে। ব্লুমবার্গ নিউজ জানিয়েছে, ছবিটি কয়েক বছর আগে স্প্রাটলি দ্বীপপুঞ্জের অন্তর্গত এলদাদ রিফের।

দক্ষিণ চিন সাগরের ওই বিতর্কিত অঞ্চলকে ‘নিজেদের’ বলে দাবি করে ব্রুনেই, তাইওয়ান, ফিলিপিন্স, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনামের মতো দেশও। তাদের মোকাবিলার দায়িত্বে থাকা চিনা ফৌজের সাদার্ন থিয়েটার কমান্ড ওই ঘাঁটিগুলি বানিয়েছে। ঘটনাচক্রে, দক্ষিণ চিন সাগরের ওই অংশেই রয়েছে ‘গুপ্তধন’— প্রাকৃতিক গ্যাস এবং তেলের এক বিপুল ভান্ডার।

সে কারণেই ‘কৌশলগত ঘাঁটি’ বানিয়ে নৌ-আধিপত্য বজায় রাখতে বেজিং তাই এত তৎপর বলে মনে করেন অনেকে। দক্ষিণ চিন সাগরের পারাশেল দ্বীপপুঞ্জের উডি দ্বীপেও চিনা সেনা কয়েক বছর আগে বড় ঘাঁটি বানিয়েছে। তার অদূরে ফেয়ারি ক্রস রিফে গড়া হয়েছে ১০ হাজার ফুট লম্বা একটি রানওয়ে। যাতে নামতে পারে আধুনিক যুদ্ধবিমানও।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

South China Sea China PLA
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE