• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আট দিন পরেও টানাটানির বিদ্যুৎ

Electricity
—ফাইল চিত্র।

আমপান-বিপর্যয়ের পরে দিন দুই আগে পাড়ায় বিদ্যুৎ এসেছে ঠিকই, কিন্তু সাময়িক ভাবে। সেই অস্থায়ী সংযোগে এক-একটি বাড়িতে চলছে একটি করে পাখা ও আলো। ফ্রিজ, জলের পাম্প, এসি, মাইক্রোওয়েভ, ওয়াশিং মেশিনের মতো দৈনন্দিন ব্যবহার্য কিছুই চালানো যাচ্ছে না। ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ার আট দিন পরেও শহরের বেশ কয়েকটি জায়গায় বিদ্যুৎ না-আসায় পরিস্থিতি এখন এমনই।

সন্তোষপুর অ্যাভিনিউ সেকেন্ড রোড অথবা ঠাকুরপুকুরের ৩এ বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দাদের প্রশ্ন, ঝড়ের আট দিন পরেও বিদ্যুতের সংযোগ সারানো হল না কেন? কেন এখনও কিছু বাড়িতে আলো এল না?

সন্তোষপুর অ্যাভিনিউ সেকেন্ড রোডে গিয়ে দেখা গেল, সেখানে রাস্তার উপরে বিদ্যুতের খুঁটি এখনও উপড়ে পড়ে আছে। সেই খুঁটি ঘিরে তারের জট। সিইএসসি-র কর্মীরা কাজ করছেন। এলাকার বাসিন্দা অমিত বাগচী বললেন, ‘‘বিদ্যুতের খুঁটি থেকে অস্থায়ী ভাবে লাইন টানা হয়েছে। কোথাও আবার যে বাড়িতে আলো আছে, সেই বাড়ি থেকে সাময়িক ভাবে সংযোগ দেওয়া হয়েছে। ফলে ফ্রিজ, ওয়াশিং মেশিনের মতো জরুরি জিনিস চালাতে পারছি না।’’

এলাকার আর এক বাসিন্দা রজত বেরার কথায়, ‘‘পাড়ার সকলেই একসঙ্গে জলের পাম্প চালাতে পারছি না। এক জন যখন পাম্প চালাচ্ছেন, তখন অন্যদের পাম্প বন্ধ রাখতে হচ্ছে।’’ বাসিন্দারা জানাচ্ছেন, পাড়ায় অনেক অসুস্থ মানুষ আছেন। তাঁরা খুব কষ্ট পাচ্ছেন। সিইএসসি-র এক কর্তা বলেন, ‘‘আপাতত এসি, লিফট চলবে না। ক’দিনেই সব ঠিক হয়ে যাবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন