তোলাবাজির অভিযোগে ফের গ্রেফতার লেকটাউনের কুখ্যাত তোলাবাজ দিলীপ বন্দ্যোপাধ্যায় ওরফে হাতকাটা দিলীপ। মঙ্গলবার রাতে তাকে গ্রেফতার করে লেকটাউন থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, ধনঞ্জয় মুখোপাধ্যায় নামে লেকটাউনের বাসিন্দা এক প্রোমোটার মঙ্গলবার পুলিশের কাছে দিলীপের বিরুদ্ধে তোলাবাজির অভিযোগ করেন। তিনি পুলিশকে জানিয়েছেন, ঘটনার সূত্রপাত বেশ কয়েক মাস আগে। পাতিপুকুরে একটি জমিতে তাঁর নির্মাণকাজ চলছে। সেই কাজের জন্য বেশ কয়েক মাস ধরেই দিলীপ তাঁর কাছে টাকা চাইছিল।

তিনি প্রথমে টাকা দিতে অস্বীকার করলে দিলীপ তাঁকে প্রাণে মারার হুমকি দেয়। ধনঞ্জয়বাবু পুলিশকে জানিয়েছেন, তিনি সেই সময় ভয়ে দিলীপের দলবলকে ১ লাখ টাকা দেন। এর পর বেশ কিছু দিন পরিস্থিতি ঠান্ডা ছিল। অভিযোগ, কয়েক সপ্তাহ আগে ফের দিলীপ টাকা দাবি করে। তিনি এ বারও টাকা দিতে অস্বীকার করেন।

গ্রেফতার দিলীপ, বুধবার তোলা হবে আদালতে। নিজস্ব চিত্র।

পুলিশকে ওই প্রোমোটার জানিয়েছেন, তিনি টাকা দিতে অস্বীকার করায়, গত সোমবার সন্ধ্যায় দিলীপ নিজে দলবল নিয়ে হাজির হয় তাঁর ফ্ল্যাটে। অভিযোগ, দিলীপ এবং তার দলবল মত্ত অবস্থায় ছিল। তারা ওই প্রমোটারকে ব্যাপক গালিগালাজ করে। হুমকি দেয় এবং ফের টাকা চায়। মঙ্গলবার অভিযোগ পেয়ে দিলীপকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বুধবার তাকে বিধাননগর আদালতে তোলা হবে।

আরও পড়ুন: দরজা হাট করে খোলা, ভিড়ে ঠাসা মেট্রো ছুটল দমদম থেকে কবি সুভাষ!

নয়ের দশকের শেষ দিক থেকে দিলীপের উত্থান। লেকটাউন, পাতিপুকুর, বাঙুর এলাকার ত্রাস হয়ে ওঠে সে। নয়াপট্টির জোড়া খুনের মামলায় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। জেলে বসেও নিজের তোলাবাজির নেটওয়ার্ক চালিয়েছে দিলীপ। জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর দিলীপ দাবি করেছিল, তার আর অপরাধ জগতের সঙ্গে কোনও যোগাযোগ নেই। নিজেই কিছু প্রোমোটিংয়ের কাজ শুরু করে।

আরও পড়ুন: মর্গে দেহ, জানে না পুলিশ, ১৩ দিন ধরে নিখোঁজ ভাইকে খুঁজলেন কালীঘাটের বনমালি

তবে গত কয়েক মাসে দিলীপের নামে একাধিক অভিযোগ পাচ্ছিল পুলিশ। কেউ সরাসরি পুলিশে অভিযোগ না করলেও, দিলীপ যে ফের তোলাবাজির রাস্তায় পা দিয়েছে, তার স্বপক্ষে হাতে নাতে কোনও প্রমাণ পাচ্ছিল না পুলিশ। বিধাননগর পুলিশের এক কর্তা বলেন, ‘‘ভয়ে অনেকেই অভিযোগ করছিলেন না। অভিযোগ পেতেই আমরা গ্রেফতার করেছি দিলীপকে।’’