রাঘবেন্দ্রর সঙ্গে পারুলের প্রেম চলছে?

সবাই তো জানে যে পারুল আর রাঘব দু’জন দু’জনকে ভালবাসে। রাঘব পারুলকে হারাতে চায় না। দু’জনেই দু’জনের ওপর নির্ভর করে। এখন ধীরে ধীরে ওদের প্রেম আরও গভীর হচ্ছে। 

আর রুদ্রজিতের সঙ্গে রুশা কী করছে?

আমি যখন প্রথম এই সিরিয়ালে এলাম রুদ্র’র সঙ্গেই আমার বেশি শুটিং ছিল। ও খুব হেল্প করেছে। পারুলের সঙ্গে সবসময় জাদু ঝোলা থাকে। তো জাদু ঝোলা কোথায় রাখব, কী ভাবে জাদু ঝোলা থেকে জাদু কাঠি বের করে মাথায় কী ভাবে স্পর্শ করব— এগুলো বলে দিত। আর শুটিংয়ের ফাঁকে সারা ক্ষণ আমরা মজা করতে থাকি। হয়ত কিছু একটা দেখে আমি খুব হাসছি। ভুল করে রুদ্র’র দিকে চোখ পড়ে গেলে তখন আর হাসি কন্ট্রোল করতে পারি না। রুদ্র খুব ফ্রেন্ডলি, আমার থেকে এক বছরের ছোট বলে আমি অ্যাডভান্টেজ নিই। আমি ওকে মাঝে মাঝে বলি, ‘শোন, তুই বাচ্চা। বেশি কথা বলিস না’। সব মিলিয়ে বেশ মিষ্টি সম্পর্ক।

আপনার জাদু ঝোলা থেকে কী কী বেরোয়?

সব কিছু। জাদু ঝোলায় একটা জাদু জুতো আছে, যেটা পরে আমরা উড়ে উড়ে একটা জায়গা থেকে আর একটা জায়গায় পৌঁছে যাই। একটা জাদু দণ্ড আছে, যেটা দিয়ে মানুষকে ট্রান্সফর্ম করা যায়। পশুপাখি বানিয়ে দেওয়া যায়, রাক্ষস বানিয়ে দেওয়া যায় বা অন্য একজন মানুষ বানিয়ে দেওয়া যায়। একটা জাদু ছোরা আছে, যা দিয়ে সব কিছু কাটা যায়। হারমাইনির যে রকম চার্মস ব্যাগ ছিল, এটা সে রকম পারুলের চার্মস ব্যাগ। মানে, এই ব্যাগে যা যা আছে, তাই দিয়ে রাঘবকে ছোট মানুষ বানিয়ে ব্যাগের মধ্যে ভরে নিয়ে যাওয়া যায় যেখানে ইচ্ছা। পারুলের এই জাদু ব্যাগ উপহার পাওয়া।

জাদু কাঠি দিয়ে নিজের একমাত্র ভাইকে ছোট করে দিতে চান রুশা।নিজস্ব চিত্র। 

জাদু ঝোলা সত্যি সত্যি পেয়ে গেলে কী করবেন?

ও! মারাত্মক ভাল হবে। সবথেকে ভাল হবে আমি যা চাই সব যদি এই ব্যাগ থেকে পেয়ে যাই। আমার লাগেজ কমে যাবে। বাড়িতে জিনিসপত্র কম থাকবে।

আর কিছু না?

বাকি... আই গো উইথ দ্য ফ্লো। আর কিছু কন্ট্রোল করতে চাই না। তবে হ্যাঁ, কয়েকটা ইমোশন যদি ব্যাগে রেখে দিতে পারি আর প্রয়োজন মতো বের করে নিতে পারি তা হলে খুবই ভাল হয়।

আরও পড়ুন: ‘সবাই দেখা হলে বলেন, খুব ভাল অভিনয় কর, কিন্তু কেউ ডাকেন না’

জাদু কাঠি দিয়ে কাউকে ছোট করে দিতে চান?

ছোট করে রাখার... (একটু ভেবে)... একমাত্র আমার ভাইকে। ভাই যখন প্রচণ্ড ইরিটেট করে আমাকে...... ঝগড়া হয়... (হো হো হাসি)... তখন মনে হয় ওকে কোথাও একটা ভরে রাখতে পারলে ভাল হত। কিন্তু এখন ও বাইরে থাকে। খুব মিস করি।

কাউকে ট্রান্সফর্ম করতে ইচ্ছে হয় না?

ট্রান্সফর্ম? নিজেকে করে দিতে ইচ্ছে হয়। জাদু দণ্ড দিয়ে যদি নিজেকে ট্রান্সফর্ম করে দিতে পারতাম খুব ভাল হত। আজ আমি রুশা হয়ে আছি... যদি ট্রান্সফর্ম করে অন্য একজন মহিলা হয়ে যেতাম, তা হলে আমি আজ বাড়িতে ঘুমোতে পারতাম। ট্রান্সফর্ম হয়ে গেলাম, ইনভিজিবল হয়ে গেলাম... বাড়ি চলে গেলাম... কেউ আমাকে খুঁজে পেল না... এইটা ইচ্ছা আছে... যদি হয় (হাসি)।

আরও পড়ুন: ব্লাউজের বোতাম খুললে আর ব্রা দেখালেই সাহসী হয় না: স্বস্তিকা

পারুল ও রুশার মিল বা অমিল কতটা?

অমিল তো মারাত্মক। পারুল সোর্ড ফাইটিং করছে, আঘাত করছে লোকজনকে। আমি এসব করতে পারব না কোনও দিন। কোনও প্রবলেম হলে, ‘সিট, টক অ্যান্ড সলভ ইট’- এরকম টাইপের আমার মেন্টালিটি। আর মিল হল, উই বোথ আর ভেরি স্ট্রং পার্সোনালিটি। যদি কিছু হয় আই স্ট্যান্ড আপ ফর মাই রাইটস, আই স্ট্যান্ড আপ ফর পিপলস রাইটস। মা-বাবা ছোটবেলা থেকে শিখিয়েছেন, সব সময় নিজের কথা ভাবতে নেই। আশেপাশের লোককে নিয়ে এগিয়ে যাও, দেখবে নিজেও এগিয়ে যাচ্ছ।

(সেলেব্রিটি ইন্টারভিউ, সেলেব্রিটিদের লাভস্টোরি, তারকাদের বিয়ে, তারকাদের জন্মদিন থেকে স্টার কিডসদের খবর - সমস্তসেলেব্রিটি গসিপপড়তে চোখ রাখুন আমাদেরবিনোদনবিভাগে।)