Advertisement
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
Yoga

Menstrual Cramps: তিন আসন: নিয়মিত করলে জব্দ হবে ঋতুস্রাবের ব্যথা

ফিটনেস বিশেষজ্ঞদের মতে, ঋতুস্রাবের সময়ের ব্যথা দূর করতে ভরসা রাখুন যোগাসনেই। জেনে নিন কোন আসন করলেই মিলবে আরাম।

ঋতুস্রাবকালীন যন্ত্রণা দূর করুন যোগের মাধ্যমেই।

ঋতুস্রাবকালীন যন্ত্রণা দূর করুন যোগের মাধ্যমেই।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৫ অগস্ট ২০২২ ১২:৪১
Share: Save:

ঋতুস্রাব চলাকালীন বহু মহিলাকেই পড়তে হয় অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে। পেটের ব্যথা, কোমরের ব্যথায় হতে হয় নাজেহাল। তার জেরে হাঁটাচলা করতেও অসুবিধে হয় অনেকেরই। রোজের কাজেও তার প্রভাব পড়ে। প্রতি মাসে তো ব্যথার ওষুধ খাওয়া যায় না। ব্যথার ওষুধের কারণে হতে পারে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া। ফিটনেস বিশেষজ্ঞদের মতে, ঋতুস্রাবের সময়ের ব্যথা দূর করতে ভরসা রাখুন যোগাসনেই। জেনে নিন কোন আসন করলেই মিলবে আরাম।

১। বালাসন

আপনার প্রজননে সাহায্যকারী অঙ্গগুলিকে নমনীয় করার পাশাপাশি আপনার পিঠ, কাঁধ এবং ঘাড়ের টান মুক্ত করে এই ব্যায়াম। ঋতুস্রাবের সময় আপনার গর্ভাশয়ের পেশিতে ব্যথা অনুভব করলে, এই সহজ ব্যায়ামটি আপনাকে সাহায্য করতে পারে।

কী ভাবে করবেন? হাঁটু মুড়ে গোড়ালির উপর বসুন। এ বার শরীরটা ব্যাঁকান। শরীরটা এমন ভাবে ব্যাঁকান যাতে বুক উরুতে গিয়ে ঠেকে। মাথা গদির উপরে রেখে হাত দুটো সামনের দিকে প্রসারিত করুন।

২। ধনুরাসন

অনিয়মিত ঋতুস্রাব এবং পিসিওস রোগ নিরাময়ের জন্য ধনুরাসন সবচেয়ে উপকারী। এটি প্রজনন অঙ্গগুলোর কার্যকারিতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। কোষ্ঠকাঠিন্য এবং অন্যান্য পেটের অসুখের রোগীদের জন্যও এই আসন দারুণ উপকারী।

ধনুরাসন।

ধনুরাসন।

কী ভাবে করবেন?উপুড় হয়ে শুয়ে পড়ুন। তার পর হাঁটু ভাঁজ করে পায়ের পাতা যতটা সম্ভব পিঠের উপর নিয়ে আসুন। এ বার হাত দুটো পিছনে নিয়ে গিয়ে গোড়ালির উপর শক্ত করে চেপে ধরুন। চেষ্টা করুন পা দুটো মাথার কাছাকাছি নিয়ে আসতে। এই ভঙ্গিতে মেঝে থেকে বুক, হাঁটু ও উরু উঠে আসবে। পেট মেঝেতে রেখে উপরের দিকে তাকান। এই ভঙ্গিতে স্বাভাবিক শ্বাস-প্রশ্বাস নিয়ে ২০ থেকে ৩০ সেকেন্ড থাকুন। তারপর পূর্বের ভঙ্গিতে ফিরে যান।

৩। পশ্চিমোত্তানাসন

এই আসনের মাধ্যমে সারা শরীরে রক্তসঞ্চালন ভাল হয়। ঋতুস্রাব চলাকালীন এই আসন করলে শ্রোণীতল প্রসারিত হয়ে ফলে পেটের তীব্র যন্ত্রণার হাত থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

কী ভাবে করবেন?এই আসনটি করতে প্রথমে চিত হয়ে শুয়ে দু’হাত মাথার দু’পাশে উপরের দিকে রাখুন। পা দু’টি একসঙ্গে জোড়া রাখুন। এ বার আস্তে আস্তে উঠে বসে সামনে ঝুঁকে দু’হাত দিয়ে দুই পায়ের বুড়ো আঙুল স্পর্শ করুন। কপাল দু’পায়ে ঠেকান। হাঁটু ভাঁজ না করে পেট ও বুক উরুতে ঠেকান। কিছু ক্ষণ এই ভঙ্গিতে থাকার পর ধীরে ধীরে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসুন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.