Advertisement
১৯ এপ্রিল ২০২৪
Murder Case

কন্যার পরীক্ষা পর্যন্ত স্ত্রীকে পরকীয়া না করার ‘অনুরোধ’ যুবকের, না শোনায় চরম পদক্ষেপ

ভিডিয়োয় যুবক দাবি করেছেন, তাঁরই বন্ধুর সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়েছিলেন স্ত্রী। তিনি মানতে পারেননি। কিন্তু স্ত্রী তাঁকে এবং ছেলেমেয়েদের ছেড়ে প্রেমিকের সঙ্গে পালাতে মরিয়া ছিলেন।

murder

স্ত্রীকে খুন করে ভিডিয়োবার্তা দিলেন স্বামী। জানালেন, তিনি দুঃখিত। কিন্তু, অনুতপ্ত নন। ছবি: সংগৃহীত।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১০:৪১
Share: Save:

স্বামীর বন্ধুর সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে তাঁর সঙ্গে পালাতে চেয়েছিলেন মহিলা। স্বামীর দাবি, মেয়ে দশম শ্রেণির ছাত্রী। সামনে তার বোর্ড পরীক্ষা। তাই স্ত্রীকে বারণ করেছিলেন, এমনটা যেন না করেন। কিন্তু স্ত্রী উল্টে অশান্তি করেন। সংসার করতে চাননি। সেই রাগে তাঁকে খুন করেছেন। কেন স্ত্রীকে খুন করেছেন, তার কারণ বর্ণনা করে রক্তাক্ত দেহের পাশে বসে ভিডিয়ো করেন যুবক। সেই ভিডিয়ো আবার ‘শেয়ার’ করেন প্রতিবেশীদের হোয়াট্‌সঅ্যাপ গ্রুপে। মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটেছে গুজরাতের রাজকোটে। অভিযুক্তের দাবি, স্ত্রীকে খুন করার জন্য তিনি দুঃখিত। কিন্তু অনুতপ্ত নন।

পুলিশ সূত্রে খবর, মৃতার নাম অম্বিকা। তাঁর স্বামীর নাম গুরুপা জিরোলি। নির্মাণ শিল্পের সঙ্গে যুক্ত জিরোলি মঙ্গলবার সকালে স্ত্রীকে ভারী বস্তু দিয়ে খুন করেন। তার পর তাঁর রক্তাক্ত দেহের পাশে বসে ভিডিয়ো করেন।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই দম্পতির দুই সন্তান। মেয়ের বয়স ১৭ বছর। ছেলে ১০ বছরের। ভিডিয়োয় জিরোলি দাবি করেছেন, তাঁরই বন্ধুর সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়েছিলেন স্ত্রী। তিনি মানতে পারেননি। কিন্তু স্ত্রী তাঁকে এবং ছেলেমেয়েদের ছেড়ে প্রেমিকের সঙ্গে পালাতে মরিয়া ছিলেন। সামনে মেয়ের বোর্ড পরীক্ষা। স্ত্রীকে তিনি বুঝিয়েছিলেন, মেয়ের পরীক্ষা মিটে গেলে বিষয়টি নিয়ে তাঁরা আলোচনা করবেন। চাইলে তখন বিবাহবিচ্ছেদও করবেন। কিন্তু অম্বিকা তা মানতে চাননি বলে অভিযোগ করেছেন ওই যুবক। সেই রাগে স্ত্রীকে তিনি মেরে ফেলেছেন বলে ভিডিয়োবার্তায় জানিয়েছেন অভিযুক্ত। যে আবাসনে ওই দম্পতি থাকতেন, তাঁদের একটি হোয়াট্‌সঅ্যাপ গ্রুপ রয়েছে। সেখানে ওই ভিডিয়োটি ‘শেয়ার’ করেন অভিযুক্ত স্বামী। সঙ্গে সঙ্গে শোরগোল শুরু হয়। তার মধ্যে জিরোলি নিজেই পুলিশকে ফোন করে ডাকেন।

পুলিশ সূত্রে খবর, আদতে মহারাষ্ট্রের শোলাপুরের বাসিন্দা। ২০০৩ সাল থেকে তাঁরা রাজকোটে থাকেন। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানিয়েছে, সোমবার রাত ২টো নাগাদ দম্পতির মধ্যে অশান্তি তুঙ্গে ওঠে। সেই সময় ভারী কোনও বস্তু দিয়ে স্ত্রীর মাথায় বাড়ি মারেন স্বামী। অকুস্থলেই মহিলার মৃত্যু হয়। তার পর মোবাইল নিয়ে স্ত্রীর রক্তাক্ত দেহের পাশে বসে দুটি ভিডিয়ো রেকর্ড করেন অভিযুক্ত স্বামী। সেই ভিডিয়ো দুটি হোয়াট্‌সঅ্যাপ গ্রুপে ‘শেয়ার’ করে নিজের কৃতকর্মের জন্য প্রতিবেশীদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থনা করেন জিরোলি। পাশাপাশি তিনি জানান, স্ত্রী পরকীয়ায় জড়়িয়েছিলেন বলে তাঁকে নিজের হাতে খুন করেছেন তিনি। জিরোলি এ-ও দাবি করেন, বন্ধুর সঙ্গে স্ত্রীর ‘সম্পর্ক’ নিয়ে তিনি বার বার সরব হয়েছেন। কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয়নি। ভিডিয়োবার্তায় অভিযুক্ত এ-ও জানান, তাঁকে দিনের পর দিন ‘হেনস্থা’ করেছেন স্ত্রী। তাই তাঁকে খুন করে তিনি অনুতপ্ত নন। এমনকি, পুলিশকে তাঁকে গ্রেফতার করতে এলে জিরোলি জানান, তাঁকে যেন হাতকড়া পরানো না হয়। তিনি কোনও দাগী অপরাধী নন।

পুলিশ প্রথমে অভিযুক্তকে আটক করেছিল। তারা অপেক্ষা করে মৃতার বাপের বাড়ির লোকজনের জন্য। তাঁরা এসে এফআইআর করার পর ওই যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার তদন্তে নেমে প্রতিবেশী এবং ওই দম্পতির পরিচিতদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ। খতিয়ে দেখা হচ্ছে দুটি ভিডিয়ো।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE