Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৬ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

তিন মাসের ইএমআই কি মকুব? রইল এমনই নানা প্রশ্নের উত্তর

ইএমআই মকুব নয়, পিছিয়ে দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে। অর্থাৎ ব্যাঙ্ক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান অনুমোদন দিলে তিন মাসের জন্য ইএমআই দিতে হবে না গ্রাহকদে

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২৭ মার্চ ২০২০ ১৫:৩৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

Popup Close

করোনাভাইরাসের মোকাবিলায় আমজনতা এবং ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানকে স্বস্তি দিতে বড়সড় ঘোষণা করেছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া (আরবিআই)। মেয়াদি ঋণের উপর ইকুয়াল মান্থলি ইনস্টলমেন্ট বা ইএমআই পিছিয়ে দেওয়া জন্য ব্যাঙ্কগুলিকে অনুমোদন দেওয়ার কথা জানিয়েছেন আরবিআই গভর্নর শক্তিকান্ত দাস। তাতে ক্রেডিট স্কোরের উপরেও কোনও প্রভাব পড়বে না।

তবে উল্লেখযোগ্য, ইএমআই মকুব নয়, পিছিয়ে দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে। অর্থাৎ ব্যাঙ্ক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান অনুমোদন দিলে তিন মাসের জন্য ইএমআই দিতে হবে না গ্রাহকদের। পরে কী ভাবে সেই ইএমআই নেওয়া হবে, তা ব্যাঙ্কগুলি ঠিক করবে। এ বার ব্যাঙ্কগুলিও সেই পথেই হাঁটবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

কিন্তু এই ঘোষণার পরেও সাধারণ ঋণগ্রহীতাদের মধ্যে অনেক প্রশ্ন থেকে গিয়েছে। সব ঋণের ইএমআই পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে কি না, ভবিষ্যতে এক সঙ্গে তিন মাসের ইএমআই দিতে হবে কি না— এমন প্রচুর প্রশ্নের উত্তর খুঁজছেন তাঁরা। রইল তেমনই কিছু প্রশ্নের উত্তর।

Advertisement

প্র: এটা কি ইএমআই মকুব, নাকি স্থগিত?

উ: না এটা ইএমআই মকুব নয়। বরং স্থগিত বলা যেতে পারে। অর্থাৎ তিন মাসের জন্য ইএমআই দিতে হবে না। তবে এই স্থগিত ইএমআই দিতেই হবে। সেটা কী ভাবে দিতে হবে, তা ব্যাঙ্কগুলি ঠিক করবে। বিভিন্ন ব্যাঙ্কের ক্ষেত্রে আলাদাও হতে পারে। কেউ পুরো ঋণের মেয়াদ বাড়িয়ে দিতে পারে। অর্থাৎ ঋণের মেয়াদ পাঁচ বছর হলে এ ক্ষেত্রে পাঁচ বছর তিন মাস হতে পারে। আবার এখনকার ইএমআই-এর সঙ্গে তিন মাসের ইএমআই বকেয়া ইএমআইগুলির সঙ্গে সমান ভাগে যোগ হতে পারে।

আরও পড়ুন: অর্থনীতিতেও করোনার সংক্রমণ, দেশের জিডিপি বৃদ্ধির পূর্বাভাস অর্ধেকে নামিয়ে আনল মুডিজ

প্র: কী ধরনের ঋণের ইএমআই স্থগিত করা হয়েছে?

উ: আরবিআই-এর ঘোষণা অনুযায়ী সব ধরনের মেয়াদি ঋণের ক্ষেত্রে এই নিয়ম কার্যকর হবে। অর্থাৎ যে সব ঋণ নির্দিষ্ট মেয়াদের মধ্যে মাসিক কিস্তিতে শোধ করার প্রতিশ্রুতি রয়েছে, সেই সব ঋণের ইএমআই এর আওতায় আসবে। এর মধ্যে পড়ছে বাড়ি, গাড়ি, শিক্ষার জন্য নেওয়া ঋণ। এমনকি পার্সোনাল লোনের ক্ষেত্রেও এটা প্রযোজ্য। তা ছাড়া ফ্রিজ, টিভি, মোবাইল, ল্যাপটপ, কম্পিউটারের মতো ভোগ্যপণ্যের ঋণের ক্ষেতেও এই নিয়ম কার্যকর হবে।

প্র: শুধুই কি ইএমআই-এর সুদ স্থগিত হবে, নাকি পুরো ইএমআই?

উ: সুদ এবং আসল অর্থাৎ পুরো ইএমআই তিন মাসের জন্য দিতে হবে না। এ বছরের পয়লা মার্চ থেকে যে সব ঋণের ইএমআই বাকি, সেগুলির ক্ষেত্রেই এই মকুবের ঘোষণা হয়েছে। ব্যাঙ্ক ঘোষণা করলেই ছাড় পাওয়া যাবে।

প্র: কোন কোন ব্যাঙ্ক এই সুযোগ দিতে পারে?

উ: সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাঙ্কই এই সুযোগ দেবে। আঞ্চলিক, গ্রামীণ, কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্কও এর আওতায় পড়ছে। তা ছাড়া যে কোনও ঋণদানকারী আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও গৃহঋণ প্রদানকারী সংস্থাও এই সুবিধা দেবে।

আরও পড়ুন: করোনা আপডেট: আমেরিকায় আক্রান্ত বেড়ে ৮৫ হাজার, ছাপিয়ে গেল চিন, ইটালিকেও

প্র: ইএমআই দেওয়ার সময় হয়ে এসেছে। অ্যাকাউন্ট থেকে কি তাহলে টাকা কাটা হবে?

উ: আরবিআই শুধুমাত্র ব্যাঙ্কগুলিকে নির্দেশ দিয়েছে। প্রত্যেক ব্যাঙ্ক আলাদা ভাবে সিদ্ধান্ত নেবে। এর অর্থ, আপনার ইএমআই-এর কাটার তারিখের আগে আপনার ব্যাঙ্ক সিদ্ধান্ত না নিলে বা আপনাকে না জানালে এ মাসের ইএমআই স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতেই কেটে যাবে।

প্র: কী ভাবে জানব যে ইএমআই স্থগিত করা হয়েছে?

উ: আরবিআই এখনও বিস্তারিত নির্দেশিকা প্রকাশ করেনি। সেটা প্রকাশ্যে এলে তার পরেই বিষয়টি আরও স্পষ্ট হবে।

প্র: ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের জন্য ঋণ নিলে তার কী হবে?

উ: সে ক্ষেত্রেও একই নিয়ম, অর্থাৎ তিন মাসের জন্য ইএমআই দিতে হবে না। মেয়াদি ঋণ হিসেবে নিলেই এই সুবিধা পাওয়া যাবে, সেটা যে কোনও কারণেই নেওয়া হোক। আপনার ব্যাঙ্ক সিদ্ধান্ত নিলেই আপনি তার যোগ্য। তবে এককালীন ঋণ পরিশোধের শর্ত থাকলে তাতে ছাড় মিলবে না।

প্র: ব্যাঙ্ক কী ভাবে কাজ করবে?

উ: ব্যাঙ্কের পরিচালন বোর্ডে এ নিয়ে আলোচনার পর সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেবেন। সেটা হয়ে গেলে কাস্টমারদের ফোন করে জানানো হতে পারে।

প্র: ক্রেডিট কার্ডের বকেয়া বা ইএমআই-এর ক্ষেত্রেও কি একই নিয়ম?

উ: ক্রেডিট কার্ডের ঋণ যেহেতু মেয়াদি ঋণ বিভাগে পড়ে না, তাই সে ক্ষেত্রে এই সুবিধা পাওয়া যাবে না।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement