• সংবাদ সংস্থা  
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

গুগ্‌লকে বোকা বানিয়ে ‘ফেক ট্রাফিক জ্যাম’ বানান এই ব্যক্তি! কী ভাবে?

Fake Traffic Jam
গুগ্‌লকে বোকা বানিয়ে ফেক ট্র্যাফিক জ্যাম। ছবি ভিডিয়ো থেকে নেওয়া।

বড় শহরে গাড়ি চালাতে অধিকাংশই এখন ভরসা রাখেন গুগ্‌ল ম্যাপে। বিশ্বকে হাতের তালুতে আনার পাশাপাশি গুগ্‌লের এই অ্যাপ রাস্তাঘাটে গাইড হিসাবেও কাজ করে। কোন রাস্তায় প্রবল ট্র্যাফিক জ্যাম বা কোন রাস্তা ফাঁকা— সে সব জানা যায় এই অ্যাপ থেকেই। কিন্তু সম্প্রতি জার্মানির এক শিল্পী এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন, যার জেরে বোকা বনেছে গুগ্‌ল ম্যাপও।

সিমন রেকের্ট নামের ওই শিল্পী থাকেন বার্লিনে। সম্প্রতি নিজের ইউটিউব চ্যানেলে তিনি আপলোড করেছেন সেই ভিডিয়ো, যা দেখে চোখ কপালে উঠেছে নেটিজেনদের।

ওই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, ফাঁকা রাস্তাতে হাতে একটা কার্ট নিয়ে ঘুরছেন সিমন। সেই কার্টের মধ্যে রয়েছে প্রচুর মোবাইল। যে রাস্তা দিয়ে তিনি যাচ্ছেন সেই রাস্তা কিন্তু যথেষ্ট ফাঁকা। কিন্তু সে সময় গুগ্‌ল ম্যাপে দেখাচ্ছে, ওই রাস্তায় প্রবল ট্র্যাফিক জ্যাম। দেখুন সেই ভিডিয়ো—

আসলে গুগ্‌ল বিভিন্ন অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস থেকে ক্রমাগত তথ্য সংগ্রহ করে। মোবাইল ও বিভিন্ন গাড়ির অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস থেকে সংগৃহীত সেই তথ্য বিশ্লেষণ করেই ‘ট্র্যাফিক সাজেশন’ দিয়ে থাকে। একই সঙ্গে কোনও রাস্তায় মোবাইল থাকলে বা ডিভাইসের অবস্থান পরিবর্তনের হার— এ রকম আরও কয়েকটি বিষয় দেখেই ওই ট্রাফিক আপডেট দেওয়া হয় ম্যাপে।

আরও পড়ুন: কুমিরের গলায় আটকে থাকা টায়ার খুললেই মিলবে পুরস্কার

এই পদ্ধতিকে কাজে লাগিয়েই গুগ্‌লকে বোকা বানিয়েছেন সিমন। এই কাজ করার জন্য তিনি কিনেছিলেন ৯৯টি সেকেন্ড হ্যান্ড মোবাইল। সেই মোবাইলগুলি কার্টে নিয়ে তিনি হেঁটে যান রাস্তা দিয়ে। প্রচুর অ্যান্ডয়েড ডিভাইস ধীর গতিতে যাওয়ার যার জেরে গুগ্‌ল মনে করে, ওই রাস্তায় প্রচুর গাড়ি আটকে আছে। তার প্রতিফলন পড়ে ম্যাপে। দেখায় রাস্তায় প্রচুর ট্রাফিক জ্যাম। এ ভাবেই ফেক ট্রাফিক জ্যাম বানিয়ে গুগ্‌লকে দিনের পর দিন বোকা বানিয়েছেন সিমন। এমনকি বার্লিনে থাকা গুগ্‌লের অফিসের সামনে দিয়েও এই কাজ করেছেন তিনি।

আরও পড়ুন: বাস্তবের ‘টম অ্যান্ড জেরি’! ইঁদুরের তাড়া খেয়ে ছুটছে বিড়াল

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন