Coronavirus
Coronavirus
আমেরিকায় আড়াই লক্ষের মৃত্যুর আশঙ্কা, ফ্রান্সে এক দিনে মৃত ৪৯৯: করোনা আপডেট
  • সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সামনে কঠিন সময় আসতে চলেছে বলে মঙ্গলবারই দেশবাসীকে সতর্ক করেছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর তার পরই করোনা সংক্রমণে মৃত্যুসংখ্যার নিরিখে চিনকে ছাপিয়ে গেল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত সেখানে ৪ হাজার ৮১ মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে ঠেকেছে ১ লক্ষ ৮৯ হাজার ৬৩৩-এ। যে হারে মৃত্যু সংখ্যা বাড়ছে, তাতে এখনই এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসার কোনও লক্ষণ দেখতে পাচ্ছে না হোয়াইট হাউস। বরং আগামী কয়েক সপ্তাহে নোভেল করোনার প্রকোপে প্রায় আড়াই লক্ষ মার্কিন নাগরিক প্রাণ হারাতে পারেন বলে সতর্ক করা হয়েছে।

করোনা মোকাবিলা নিয়ে মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, ‘‘আগামী দুই সপ্তাহ খুবই যন্ত্রণাদায়ক হতে চলেছে। প্রত্যেক আমেরিকানকে বলছি, এখন থেকেই তার জন্য প্রস্তুত হোন।’’এই অতিমারি কাটিয়ে উঠতে গেলে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ছাড়া আর কোনও উপায় নেই বলে মনে করছেন মার্কিন স্বাস্থ্যকর্তারা। যদিও এতে দেশের অর্থনীতির উপর ব্যাপক প্রভাব পড়বে বলে আশঙ্কা করছেন সে দেশের অর্থনীতিবিদরা।

আমেরিকার পাশাপাশি নোভেল করোনার প্রকোপে বিশ্বের অন্য দেশগুলিতেও মৃত্যুমিছিল অব্যাহত। এ দিন বিকাল ৫টা পর্যন্ত গোটা বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ৪৩ হাজার ২৮৮। আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে ঠেকেছে ৮ লক্ষ ৭৪ হাজার ৮১-তে। যার মধ্যে ইটালিতেই ১২ হাজার ৪২৮ জন করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে। এই মুহূর্তে ইটালি আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ ৫ হাজার ৭৯২। স্পেনে এখনও পর্যন্ত ৯ হাজার ৫৩ জন প্রাণ হারিয়েছেন। মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ১ লক্ষ ২ হাজার ১৩৬ জন। ফ্রান্সে মঙ্গলবার সারাদিনে ৪৯৯ জন প্রাণ হারিয়েছেন। এখনও হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ২২ হাজার ৭৫৭ জন। তাঁদের মধ্যে ৫ হাজার ৫৬৫ জনই আইসিইউ-তে রয়েছেন। তবে পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে চিনে। গতকাল পর্যন্ত সেখানে মৃতের সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ৩০৯ জন। এ দিন আরও এক জন প্রাণ হারিয়েছেন সেখানে।

আরও পড়ুন: নিজামউদ্দিনের জামাত ঘিরে চিন্তা গোটা দেশে​

আরও পড়ুন: করোনা: ঢিলে দিলে সর্বনাশ, হুঁশিয়ারি বিশেষজ্ঞের​

তবে মৃত্যুমিছিল অব্যাহত থাকলেও, করোনার প্রতিষেধক তৈরির কাজও এগিয়ে গিয়েছে অনেকটাই। করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসায় এর আগে ফ্লু প্রতিরোধী এভিগান ওষুধে ফল পেয়েছে বলে দাবি করে চিন। এই ওষুধের প্রয়োগে সেখানে অল্প দিনেই সুস্থ হয়ে উঠেছেন অনেকে। এ বার জাপানের ফুজিফিল্মও এই ওষুধ নিয়ে পরীক্ষা করতে চলেছে।

সংক্রমণ রুখতে বেশ কিছু পদক্ষেপ করেছে সৌদি আরবও। বছরের শুরুতে ‘উমরাহ’ বাতিল করার পর এ বার হজযাত্রাও সাময়িক ভাবে স্থগিত রাখার নির্দেশ দিয়েছেন সে দেশের প্রশাসন। এখনও পর্যন্ত সৌদিতে ১ হাজার ৫৬৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। প্রাণ হারিয়েথেন ১০ জন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন