লন্ডনের মঞ্চে ‘মত্ত’ অবস্থায় ভাষণ দেওয়ার দায়ে ইংল্যান্ডে নিযুক্ত পাকিস্তানি হাইকমিশনারকে দেশে ফেরার নির্দেশ দিল পাকিস্তানের বিদেশ মন্ত্রক। একই সঙ্গে তাঁকে ঘটনার কারণ দর্শানোর নির্দেশও দিয়েছেন পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি।

বিতর্কের সূত্রপাত গত ৯ সেপ্টেম্বর লন্ডনে। একটি মঞ্চে ‘ইন্টারন্যাশনাল পাকিস্তান প্রেস্টিজ অ্যাওয়ার্ডস’ অনুষ্ঠানে ‘মত্ত’ অবস্থায় ভাষণ দিতে দেখা যায় ইংল্যান্ডে নিযুক্ত পাক হাইকমিশনার শাহাবজাদা আহমেদ খানকে।

একই মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন পাকিস্তানের সাংস্কৃতিক জগতের খ্যাতনামা অনেকে। সেখানেই হালকা মেজাজে কথা বলতে দেখা যায় শাহেবজাদাকে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত অন্য পাকিস্তানি সেলেব্রিটিদের মঞ্চে ডাকতেও দেখা যায় তাঁকে। তাঁর এই অবস্থা দেখে হাসছিলেন দর্শকরাও। অনেকের মনে হয়েছে, তিনি ‘মত্ত’ ছিলেন।

দেখুন ভিডিয়ো

আরও পড়ুন: চাই রুশ ক্ষেপণাস্ত্র, আমেরিকায় ডোভাল

পাকিস্তানি হাই কমিশনারের এই ভিডিয়ো প্রকাশ্যে আসা মাত্রই তা ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। বিদেশের মাটিতে পাকিস্তানের মর্যাদা নষ্ট হচ্ছে, এই অভিযোগও উঠতে থাকে বিভিন্ন মহলে। এর পরেই নড়েচড়ে বসে পাক বিদেশ মন্ত্রক। টুইট করে পাক বিদেশমন্ত্রী জানান, শাহেবজাদা আহমেদ খানকে ইংল্যান্ড থেকে দেশে ফেরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: মহিলা পাইলট চাইছে রিয়াধ

শুধু দেশে ফেরাই নয়, পাকিস্তানি হাই কমিশনারকে কারণ দর্শানোর নির্দেশও দিয়েছেন পাকিস্তানি বিদেশমন্ত্রী। পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, এই ঘটনা সামনে আসার পর বন্ধু শাহাবজাদা জাহঙ্গিরকে ওই পদে বসানোর কথা ভাবছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

(সারা বিশ্বের সেরা সব খবর বাংলায় পড়তে চোখ রাখতে পড়ুন আমাদের আন্তর্জাতিক বিভাগে।)