সৌন্দর্যের নানান মাপকাঠি। তাই একই মানুষ কোনও একজনের চোখে যতটা সুন্দর মনে হয় অন্য জনের ততটা নাও মনে হতে পারে। কিন্তু কে কতটা সুন্দর তা মাপার জন্য এক বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিও রয়েছে। যাকে বলা হয় গোল্ডেন রেশিও অফ বিউটি। সেই মাপকাঠিতে বিশ্বের সব থেকে সুন্দরীর তকমা পেলেন সুপার মডেল বেলা হাদিদ।

মানুষের মুখমণ্ডলের সঙ্গে চোখ, নাক, মুখ বা ঠোটের মাপ, অনুপাত কেমন হওয়া উচিত তার একটি সূত্র রয়েছে। এটি প্রাচীন গ্রিক গণিতের উপর ভিত্তি করে তৈরি। একেই বলা হয় গোল্ডেন রেশিও। যা গোল্ডেন সেকশন বা ডিভাইন প্রোপরশন নামেও পরিচিত। এই সূত্র ধরেই মাপা হয় বিশ্বের তাবড় সুন্দরীদের সৌন্দর্য। সেখানেই সবাইকে পিছনে ফেলে দেন বেলা।

বেলা হাদিদ (২৩)-র পুরো নাম ইসাবেলা খায়ের হাদিদ। মার্কিন এই সুপার মডেলর উচ্চতা ১.৭৫ মিটার বা প্রায় পাঁচ ফুট আট ইঞ্চি।

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

Closing @etro 💚 So nice to work with you @sagliogeraldine @carlomengucci and everyone at Etro @pg_dmcasting such a kind team 💚💚💚

A post shared by 🦋 (@bellahadid) on

লন্ডনের হার্লে স্ট্রিটে বিশ্বের সুন্দরীদের সৌন্দর্য পরিমাপের ব্যবস্থা করেন বিখ্যাত ফেসিয়াল কসমেটিক সার্জন জুলিান ডি’সিলভা। তাঁর পরিমাপ অনুযায়ী বেলার মুখমণ্ডল ৯৪.৩৫ শতাংশ পারফেক্ট। বেলার নাক, চোখ, মুখের থেকেও তাঁর থুতনি সব থেকে বেশি পারফেক্ট, ৯৯.৭ শতাংশ।

আরও পড়ুন : রণথম্ভোরে দুই বাঘের তুমুল লড়াই, দেখুন ভিডিয়ো

আরও পড়ুন : কেরলে পাইথন-মানুষের মরণপণ লড়াই, দেখুন জিতল কে!

বেলার পরেই সৌন্দর্যের এই মাপকাঠিতে দ্বিতীয় স্থান দখল করেছন, মার্কিন পপ সিঙ্গার বিয়নস। গোল্ডেন রেশিও অফ বিউটির হিসেবে বিয়নস ৯২.৪৪ শতাংশ পারফেক্ট।

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by Beyoncé (@beyonce) on

তৃতীয় স্থানে রয়েছেন মার্কিন অভিনেত্রী অ্যাম্বর লরা হিয়ার্ড। তিনি ৯১.৮৫ শতাংশ পারফেক্ট।

চতুর্থ স্থানে রয়েছেন, মার্কিন সঙ্গীতশিল্পী অ্যারিনা গ্রান্ডে। তিনি ৯১.৮১ শতাংশ পারফেক্ট সুন্দরী।