ফ্লাইটে লাগেজের পরিমাণ নির্দিষ্ট ওজনের থেকে বেশি হলে গুনতে হয় অতিরিক্ত মাশুল। সেই টাকা দিতে অনিচ্ছুকরা এ জন্য বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করেন। সম্প্রতি সে রকমই এক ‘উপায়’ বেছে নিয়েছিলেন স্কটল্যাল্ডের বাসিন্দা জন ইরভিন। অতিরিক্ত লাগেজ মাশুল এড়াতে এয়ারপোর্টের মধ্যে তাঁর কাণ্ড দেখে মজায় মেতেছেন নেটিজেনরা।

পরিবারের সঙ্গে ফ্রান্সের নিস থেকে এডিনবরা যাচ্ছিলেন জন। বিমান সংস্থার তরফে তাঁকে জানানো হয়, তাঁর লাগেজের ওজন আট কেজির থেকে বেশি। তাই অতিরিক্ত ওজনের জন্য অতিরিক্ত টাকা দিতে হবে। তখন সেই অতিরিক্ত টাকা দিতে অস্বীকার করেন তিনি। আর নিজের লাগেজের ভার কমাতে সেখান থেকে জামা বের করে পরতে শুরু করে দেন। এ রকম করে তিনি ১৫টি জামা একের পর এক চাপিয়ে নেন নিজের গায়ে।

এয়ারপোর্টে বাবার এই ‘কাণ্ড’ ক্যামেরাবন্দি করে রাখেন ছেলে জোশ আরভিন। সে দিনের ঘটনার কথা এক সংবাদমাধ্যমরে সঙ্গে ভাগ করে নেওয়ার সময় তিনি জানিয়েছেন, বাবার এই কীর্তি দেখে হাসিতে পেটে খিল ধরে গিয়েছিল তাঁর। জোশ আরও বলেছেন, “কর্তৃপক্ষের তরফে বাবাকে বলছিল এতে চেকিংয়ে গিয়ে সমস্যা হতে পারে। কিন্তু বাবা তাঁদের জানায়, শুধু দেখুন আমি কী করছি।” কিন্তু শেষ অবধি তাঁদের বিমান চড়তে কোনও অসুবিধা হয়নি বলেও জানিয়েছেন জোশ। 

আরও পডুন: আইআইটির প্রবেশিকা পরীক্ষার প্রশ্ন দেখে কী বললেন অস্ট্রেলিয়ার প্রফেসররা?

এই ভিডিয়ো ৬ জুলাই আপলোড করা হয় টুইটারে। তার পর থেকেই ভাইরাল হয়েছে এটি। দেখুন লাগেজের ওজন কমাতে জোশ আরভিনের বাবা জন আরভিনের কাণ্ড- 

আরও পডুন: স্কুলে ‘হেনস্থা’, বাঙালি ছাত্রের মৃত্যু টরন্টোয়