• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কমবে ক্লান্তি, দূরে থাকবে ঘাড়ে ব্যথা, এই আসন করছেন তো?

corona exrcise
আদভাসন। অলঙ্করণ: শৌভিক দেবনাথ।

করোনা আবহে সময় যেন কাটতে চাইছে না। সবসময় বাড়িতে বসে কাজ। ঘাড়ে ব্যথা বাড়ছে, সব সময় যেন ক্লান্ত লাগছে। এ দিকে যাঁদের স্লিপ ডিস্কের সমস্যা ছিল, তাঁদের আরও বেশি করে সাবধান থাকতে হবে এখন। ক্লান্তিও দূর হবে, আবার ঘাড়ে ব্যথাও কমবে এই নিদান রয়েছে একটি বিশেষ আসনে। জেনে নেওয়া যাক সেটি।

আদভাসন

আদভাসন শব্দটির উৎপত্তি সংস্কৃত শব্দ আদভারজিতা থেকে। এর অর্থ আনত হওয়া। অনেকে এই আসনটিকে ওলটানো শবাসনও বলেন। এই আসনটি আদতে একটি বলবৃদ্ধিকারক অভ্যাস।

কী ভাবে করব

• ম্যাটের ওপর উপুড় হয়ে মাটিতে পেট ঠেকিয়ে দুই পা সোজা করে শুয়ে পড়ুন। শরীর যেন শিথিল থাকে।

• এ বারে দুই হাত কানের পাশ দিয়ে মাথার ওপরের দিকে ছড়িয়ে দিন। হাতের তালু নীচের দিকে থাকবে।    

• কপাল মাটিতে ঠেকিয়ে রাখবেন।

আরও পড়ুন: করোনার সঙ্গে লড়াইয়ে টিকে থাকতে কী কী প্রয়োজন? কী বললেন চিকিৎসকেরা?

• এ বারে পুরো শরীর শিথিল করে আরামদায়ক ভাবে মাটিতে ছেড়ে দিন। এই অবস্থায় শুয়ে স্বাভাবিক ভাবে শ্বাস প্রশ্বাস নিতে হবে। খেয়াল করে দেখবেন এই সময় প্রতি বার শ্বাস-প্রশ্বাস নেওয়ার সময় পেট মাটি থেকে ওঠানামা করছে।

• এই অবস্থায় ২ – ৫ মিনিট বা যত ক্ষণ আরামদায়ক ভাবে থাকতে পারেন, থাকতে হবে।

মনে রাখবেন

যদি মাটিতে উপুড় হয়ে শ্বাস নেওয়ার সময় বুকে চাপ লেগে শ্বাসকষ্ট হয়, তবে বুকের নীচে একটা পাতলা বালিশ রাখুন।

আরও পড়ুন: করোনা আবহে গড়ে ওঠা নতুন অভ্যাসে অজান্তেই এই সব উপকার হচ্ছে, জানতেন!​

কেন করব              

 আদভাসন আসলে উপুড় হয়ে করা শবাসন। অন্যান্য আসন অভ্যাস করার পর কয়েক মিনিট এই আসনটি করলে দ্রুত শক্তি সঞ্চয় হয়ে ক্লান্তি দূর হয়। যাঁদের স্লিপ ডিস্ক ও ঘাড়ের সমস্যা আছে তাঁদের এই আসনটি অভ্যাস করা উচিত। এ ছাড়া নিয়মিত অভ্যাস করলে ন্যুব্জ শরীর ঋজু ও টানটান হয়।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন