Advertisement
০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Potol

Recipe: ভাত বা রুটির সঙ্গে উপযোগী নিরামিষ পদ কী রাঁধবেন ভাবছেন? পটল থাকলেই কেল্লাফতে

অনেকেই বাড়িতে কোনও কোনও দিন সম্পূর্ণ নিরামিষ খাবার খান। ভাত বা রুটির সঙ্গে খাওয়ার জন্য বানিয়ে ফেলুন সুস্বাদু পটল পোস্ত।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৭ জুলাই ২০২১ ২০:০৬
Share: Save:

বাঙালি মানেই পোস্ত খেতে ভালবাসেন। ভাতের সঙ্গে ডাল আর পোস্ত হলেই ব্যাপারটা জমে যায়। এমনকি রুটির সঙ্গেও পোস্ত খেতে দারুণ লাগে। যদি এখন পোস্তর দাম এতই বেশি যে মাসের বাজারের তালিকা থেকে এই উপকরণ প্রায় বাদই পড়ে যাচ্ছে। কিন্তু নিরামিষ রান্নায় একটু-আধটু স্বাদ বদল হলে মন্দ হয় না। বিশেষ করে অনেকেই সপ্তাহের কোনও কোনও দিন সম্পূর্ণ নিরামিষ খাবার খান। তাই মাঝেমাঝে সামান্য পোস্ত চলতে পারে। যাতে পোস্ত পরিমাণে কম লাগে বিকল্প কিছু উপকরণও দেওয়া রইল প্রণালীতে।

Advertisement

পটল পোস্ত

উপকরণ:

পটল: ৪টি

Advertisement

পোস্ত বাটা: ৫০ গ্রাম (২৫ গ্রাম পোস্ত দিয়ে বাকি ২৫ গ্রাম তিল এবং চারমগজ দিতে পারেন)

হলুদগুঁড়ো: ১ চা চামচ

কাজু বাদাম: ৮টি

কাঁচালঙ্কা: ৪টি

সরষের তেল: ৩ টেবিল চামচ

চিনি: ১ চা চামচ

নুন স্বাদমতো

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

প্রণালী:

পটলের খোসা ছাড়িয়ে নিয়ে পটলগুলোকে সামান্য চিরে নিন। তারপর পটলগুলিতে নুন ও হলুদ মাখিয়ে রেখে দিন। অন্য দিকে একটি পাত্রে জল নিয়ে তাতে পোস্ত কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রেখে দিন। তারপর জলটা ছেঁকে নিয়ে পোস্ত, কাঁচালঙ্কা ও কাজু বাদাম মিক্সারে বেটে নিন। কড়াইতে তেল দিন। তেল গরম হলে পটলগুলি দিয়ে দিন। পটলগুলি ভাল করে ভাজা হয়ে গেলে কড়াই থেকে তুলে আলাদা করে সরিয়ে রাখুন। এবার ওই তেলের মধ্যে কাঁচালঙ্কা-কাজু ও পোস্তর বাটাটা দিয়ে দিন। এবার ভাল করে কিছুক্ষণ কষুন। মিনিটপাঁচেক পর সামান্য চিনি দিয়ে আরও কিছুক্ষণ কষুন। এরপর এতে পটলগুলি দিয়ে দিন। খানিক নেড়ে সামান্য জল দিয়ে কড়াইতে ঢাকা দিয়ে দিন। ৫-৭ মিনিট পর ঢাকা খুলে উপরে সরষের তেল ছড়িয়ে দিন। নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.