ডাব-চিংড়ি তো খেয়েছেন, ডাব-সরষের সঙ্গে পনিরের জাদু জানেন কি?

নিজস্ব প্রতিবেদন
ডাব-চিংড়ি তো খেয়েছেন, ডাব-সরষের সঙ্গে পনিরের জাদু জানেন কি?

মাছ-মাংসের পরিবর্ত হিসেবে পনির প্রোটিনের বেশ ভাল উৎস। যাঁরা মাছ-মাংস পছন্দ করেন না, পনির দিয়েই তাঁরা শরীরের প্রোটিনের সেই ঘাটতি অনেকটা পুষিয়ে ফেলতে পারেন। আমিষ হোক বা নিরামিষ— পনির দিয়েও বানানো যায় বিভিন্ন লোভনীয় পদ। শুধু বাঙালি রান্না বলে নয়, বিভিন্ন কন্টিনেন্টাল রান্নাতেও পনিরের ব্যবহার যথেষ্ট।

বাঙালি রান্নায় ডাবের একটা আলাদা জায়গা আছেই। ডাবের যৌথতায় চিংড়ির পদ বরাবরই খুশি করেছে ভোজনবিলাসীদের। তবে শুধু চিংড়ি নয়, রেসিপি জানলে ডাবের সঙ্গে সহজই বন্ধুত্ব করতে পারে পনির। সরষেও বাঙালি রান্নায় আলাদা স্বাদ আনে। আর এর যুগলবন্দি পনিরকে আরও সুস্বাদু করে দেয়। 

অল্প উপাদান ও সহজ প্রণালীতে ডাব-সরষে পনির বানাতে পারেন বাড়িতেই। কী কী প্রয়োজন ও কী ভাবে রান্না করতে হবে রইল তারই হদিশ।

আরও পড়ুন: সরষে-মাটনের ঝাঁজালো স্বাদে মন ভরান অতিথির

ডাব সরষে পনির

উপকরণ:

পনির: ২৫০ গ্রাম

 মালাই-সহ ডাব: ১টি

নারকেল কোরা: ৩ চা চামচ

নারকেলের দুধ: ৩ চা চামচ

সরষের তেল: ৪ চা চামচ

সরষে: ৪ চা চামচ

নুন: স্বাদ মতো

কাঁচা লঙ্কা: স্বাদ মতো 

আরও পড়ুন: নিরামিষেই স্বাদবদল, চটপট বানিয়ে নিন পনির কোফতা কাহিনি

প্রণালী: ডাবের জল খাওয়ার সময় যে ভাবে ডাব কাটেন, সে ভাবে কেটে নিন। মাঝারি টুকরো করে কেটে নিন পনিরও। এ বার সরষে, নারকেল কোরা ও স্বাদ অনুযায়ী লঙ্কা একসঙ্গে নিয়ে ভাল করে বেটে নিন। এই বাটা পনিরে মাখিয়ে তার উপর দিয়ে সরষের তেল ছড়িয়ে নিন। এ বার এই মিশ্রণকে ডাবের খোলামুখ দিয়ে তার ভিতরে প্রবেশ করান। এ বার ঢিমে আঁচে ডাব বসিয়ে তার মুখে ডাকা দিয়ে দিন। দশ মিনিট ভাপানোর পর ডাবের মুখ খুলে নারকেলের দুধ মিশিয়ে দিন তাতে। আর মিনিট দুই ফুটিয়ে উপর থেকে অল্প কাঁচা তেল ছড়িয়ে নামিয়ে নিন। তৈরি ডাব-সরষে পনির। ভাত বা পোলাওয়ের সঙ্গে পরিবেশন করুন।

(ছবি: ফাইল চিত্র)