জলে অনীহা? রইল স্মুদি ডায়েটের হালহদিশ

নিজস্ব সংবাদদাতা
জলে অনীহা? রইল স্মুদি ডায়েটের হালহদিশ

গরমে শরীরের দফারফা। কিছুতেই তেষ্টা মিটছে না। রাস্তার পানীয় কিনে খেলে শরীরের ভালর তুলনায় খারাপের আশঙ্কা অনেক বেশি।

সব থেকে সমস্যা শিশুদের। ঘামের মাধ্যমে শরীরের সমস্ত জল বেরিয়ে যাচ্ছে। পটাশিয়াম সোডিয়ামের ভারসাম্যও ঠিক রাখা দায়। তবু তাদের জলে তীব্র অরুচি। বকে মেরে বোঝানো কঠিন হয়ে যাচ্ছে।

তবে সন্তানের মন রাখতে, নিজেকেও তরতাজা রাখতে সহজ বিকল্প হাতের কাছেই আছে। পোড়া আমের শরবৎ বা বেলপানার মতো উপকারী পানীয়গুলি জেন ওয়াইয়ের পছন্দ নয়। তবে হাতের কাছেই রয়েছে তাদের মন ভরানোর রংচঙে পানীয় বানানোর সব উপাদান। সস্তায় মন এবং স্বাস্থ্য দুই-ই ভাল রাখার এমন চটজলদি দাওয়াই আর দ্বিতীয় নেই।

কিউকুম্বার অ্যান্ড ওয়াসাবি স্মুদি

উপকরণ

১টি শসা

২ গ্রাম ওয়াসাবি পেস্ট

কয়েকটা পুদিনাপাতা

২০ মিলি দই, বরফ, নুন

প্রণালী

শসা, ওয়াসাবি, পুদিনা, দই আর নুন ভাল করে বরফের সঙ্গে মিশিয়ে ব্লেন্ড করুন। পিউরির মতো ঘনত্ব হয় যেন। গ্লাসে ঢেলে আরও কিছু বরফকুচি মিশিয়ে পরিবেশন করুন।


কিউকুম্বার স্মুদি।

গুণাগুণ

গরমে শসার থেকে আরামদায়ক খাদ্য হয় না! এর ৯৫ শতাংশই যেহেতু জল, ফলে ডি-হাই়ড্রেশন দূরে রাখে। অনেকেই জানেন না যে, শসায় প্রচুর সিলিকন, ভিটামিন বি এবং সি-ও থাকে। ফলে ত্বকের পক্ষেও শসা দারুণ! শসাতে ফাইবার, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম থাকে যা রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে। পাশাপাশি শসা মূত্রের পরিমাণ বাড়িয়ে রক্তচাপের পরিমাণও নিয়ন্ত্রণ করে। দেহে টক্সিন দূর করতে শসা খুব জরুরি ফল।

অন্য দিকে ওয়াসাবি ব্যাকটেরিয়ার বিনাশ ঘটিয়ে পেট ও মুখে সংক্রমণ দূরে রাখে। গরমে নানা রকম অ্যালার্জির থেকেও রক্ষা করে।

পুদিনায় রয়েছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও ফাইটোনিউট্রেন্টস। ফলে পুদিনা সব সময়েই হজমের জন্য ভাল কাজ দেয়। পেট ঠাণ্ডা রাখে। তাৎক্ষণিক ক্লান্তি দূর করতেও পুদিনা ম্যাজিকের মতো কাজ করে।

ব্যানানা স্মুদি

উপকরণ

৩ কাপ ছোট টুকরো করে কাটা কলা

১/২ কাপ টকদই

মধু

ম্যাপল সিরাপ

দেড় কাপ ঠান্ডা দুধ

সিনেমন পাউডার

১ চা চামচ ভ্যানিলা এক্সট্র্যাক্ট


ব্যানানা স্মুদি।

প্রণালী

ব্লেন্ডারে কলা, দুধ, সিনেমন পাউডার, ম্যাপেল সিরাপ, মধু, ভ্যামিলা এসেন্স দিয়ে ভাল করে ব্লেন্ড করে দিন। দু’টুকরো বরফ দিতে পারেন পরিবেশনের সময়ে। চকলেট ব্যানানা স্মুদি বানাতে চাইলে ওপরের স্মুদির সঙ্গে কোকো পাউডার দিতে পারেন।

কলা অনেক শিশুরই ঘোর অপছন্দ। কলার মধ্যে থাকা ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়ামের শরীরে পৌঁছে দেওয়ার এর থেকে ভাল বিকল্প কিছু হতে পারে না। বড়দের রক্তাল্পতার সমস্যায় কলা খুবই উপাদেয়।