তিনি চলে গেলেন, রেখে গেলেন অনেক স্মৃতি। স্মৃতি ভারতীয় ক্রিকেট জুড়ে। কখনও সেই স্মৃতির কথা শোনা গেল সচিনের মুখে তো কখনও আজহারের। কখনও রবি শাস্ত্রী তো কখনও বিষেন বেদী। আসলে সবার মনেই অজিত ওয়াদেকর রেখে গেলেন অনেক স্মৃতি। ব্যাটসম্যান ওয়াদেকর, অধিনায়ক ওয়াদেকর, কোচ ওয়াদেকর আবার ‘ফাদার ফিগার’ ওয়াদেকর।

৭৭ বছর বয়সে চলে গেলেন তিনি। তার পর থেকেই টুইটারে ভেসে এল সকলের শোক বার্তা। সবাই তাঁদের স্মৃতি ভাগাভাগি করে নিলেন। শুধু ক্রিকেটাররা নন, টুইটে শোকবার্তা জানিয়েছন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দও। নরেন্দ্র মোদী বলেন, ‘‘ভারতীয় ক্রিকেটে তার অবদান থেকে যাবে স্মৃতিতে। গ্রেট ব্যাটসম্যান, দারুণ অধিনায়ক।’’ রামনাথল কোবিন্দ লেখেন, ‘‘অজিত ওয়াদেকরের মৃত্যুর খবরে আমি শোকাহত।  ১৯৭১-এ তিনিই বিদেশের মাটি থেকে জয় তুলে এনেছিলেন।’’

সচিন তেন্ডুলকর টুইট করে বলেন, ‘‘আমি দুঃখিত। তাঁর সময়ে আমাদের মধ্যে থেকে সেরাটা বের করে এনেছিলেন তিনি।’’ আজহার টুইটে লেখেন, ‘‘স্যার আমার জন্য ‘ফাদার ফিগার’ ছিলেন।’’ অনিল কুম্বলে লেখেন, ‘‘তিনি দলের জন্য কোচের থেকে অনেক বেশি কিছু ছিলেন।’’ সঞ্জয় মঞ্জরেকর টুইটে একটি ভিডিও পোস্ট করে লেখেন, ‘‘গত ডিসেম্বরে আমার ফোনে এই ভিডিওটি করেছিলাম। সেই ম্যাচেই এক সঙ্গে ছবিও তুলেছিলাম।’’ দুটো টুইট করেন সঞ্জয়।

আরও পড়ুন
একদিন পরে স্বাধীনতার শুভেচ্ছা, সমালোচনার জবাব দিলেন মিতালি রাজ

বিষেন বেদী লেখেন, ‘‘খুব খারাপ খবর অজিত ওয়াদেকর আর নেই। একমাত্র ভারতীয় অধিনায়ক যিনি টানা তিনটি সিরিজ জিতেছিলেন।’’ রবি শাস্ত্রী বলেন, ‘‘ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য দুঃখের দিন।’’ সুরেশ রায়না লেখেন, ‘‘তার হাত ধরে ভারত অনেক সাফল্য পেয়েছে। সব সময় মিস করব।’’

অজিত ওয়াদেকর টেস্টে মোট ২১১৩ রান করেছিলেন। তার মধ্যে রয়েছে ১৪টি হাফ সেঞ্চুরি ও একটি সেঞ্চুরি রয়েছে। প্রথমশ্রেনীর ক্রিকেটে ওয়াদেকরের অভিষেক হয় ১৯৫৮-৫৯এ। দেশের জার্সিতে অভিষেক ১৯৬৬-৬৭তে। অবসরের পর ভারতীয় দলের ম্যানেজার হিসেবে দীর্ঘদিন ছিলেন দলের সঙ্গে। মহম্মদ আজহারউদ্দিনের অধিনায়কত্বে ন’য়ের দশকের ঘটনা।