ভারতের জার্সিতে রাজনীতির রং, তীব্র আপত্তি বিরোধীদের
ভারতের গেরুয়া জার্সি নিয়ে বিতর্ক। আপত্তি জানাল কংগ্রেস ও সমাজবাদী পার্টি।
Saffron jersey

ভারতের গেরুয়া জার্সি নিয়ে বিতর্ক। ছবি: সোশ্যাল মিডিয়া

এ বারের বিশ্বকাপে অপ্রতিরোধ্য ভারতীয় ক্রিকেট দল। খেলা নিয়ে সে ভবে বিতর্ক না হলেও বিতর্ক উঠল তাদের গেরুয়া জার্সি নিয়ে। জানা গিয়েছে, ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৩০ জুন তাদের দেখা যাবে এই জার্সিতে। ভারত ও ইংল্যান্ডের জার্সির নীল রং মিলে যাওয়াতেই এই সিদ্ধান্ত। এ বারের বিশ্বকাপ শুরুর আগেই সব দলকে হোম ও অ্যাওয়ে ভিত্তিতে দু'টি আলাদা রঙের জার্সি তৈরি রাখার নির্দেশ দেয় আইসিসি। বিসিসিআই-এর তরফে অ্যাওয়ে জার্সি হিসেবে বেছে নেওয়া হয় গেরুয়া জার্সি।
এই জার্সি নিয়ে কংগ্রেস ও সমাজবাদি পার্টি অভিযোগ তোলে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে। তাদের অভিযোগ, সব কিছুতেই গেরুয়া রং আনতে চাইছে বিজেপি সরকার। ভারতের জাতীয় পতাকায় তিনটি রং থাকলেও ইচ্ছা করেই গেরুয়া রংকে বেছে নেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন তারা। কংগ্রেস নেতা নাসিম খান বলেছেন, “মোদী সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই তাঁরা এই গেরুয়া রাজনীতি শুরু করেছে। ভারতীয় পতাকার তিনটি রংকেই সম্মান জানানো উচিত। কিন্তু এই সরকার সব কিছুকেই গেরুয়া করে দিতে চাইছে।”  যদিও ভারতের বোলিং কোচ ভরত অরুণ জানিয়েছেন, জার্সির রং নিয়ে এখনই তাঁদের কিছু বলার নেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচের দিকেই তাঁদের ফোকাস। অরুণ বলেন, ‘‘উই ব্লিড ব্লু।’’ কংগ্রেস নেতা শশী থারুর যদিও খেলার সাথে রাজনীতিকে না মেশানোর আবেদনই করেছেন।
আয়োজক দেশ ইংল্যান্ড তাদের জার্সির রং নিজেদের মতো বেছে নেওয়ার সুযোগ পায় আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী। ইংল্যান্ডের জার্সির নীল রঙের সঙ্গে ভারতের নীল রং মিলে যাওয়ায় আগামী রবিবারের ম্যাচে ভারত মাঠে নামবে গেরুয়া জার্সি পরে। সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর সূত্রে জানা যাচ্ছে, ভারতীয় বোর্ড এই গেরুয়া রং বেছে নেয় তাঁদের জার্সিতে এই রং ভাল লাগবে বলে। ২০০৭-এর টি টোয়েন্টি জার্সির সঙ্গে মিল রেখেই এই রং বেছে নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: ১৯৯২-এর সঙ্গে মিল খুঁজবেন না, নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বলছেন আত্মবিশ্বাসী সরফরাজ

ম্যাচের
Live
স্কোর