টি টোয়েন্টি ফরম্যাটে পাকিস্তান এখন বিশ্বের এক নম্বর দল। কিন্তু, ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার কাছে টি টোয়েন্টি সিরিজে বিধ্বস্ত হতে হয়েছে পাকিস্তানকে। দ্বীপরাষ্ট্রের কাছে এই হতশ্রী হার ভাল ভাবে মেনে নিতে পারেননি পাক ক্রিকেটভক্ত থেকে প্রাক্তন ক্রিকেটাররা।

শ্রীলঙ্কার কাছে টি টোয়েন্টি সিরিজ হারের পরে প্রাক্তন পাক ওপেনার আমির সোহেল বলেন, “পাকিস্তানের ক্রিকেটারেরা এখন ক্রিকেটে নয়, অলিম্পিক্স ও রেসলিংয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে।’’

শ্রীলঙ্কার কাছে ৩-০ টি টোয়েন্টি সিরিজে হারের পরে ভক্তরা সরফরাজের কাট আউট ধ্বংস করেন। সেই ভিডিয়ো ভাইরাল হয় সোশ্যাল সাইটে। পাকিস্তানের পারফরম্যান্স নিয়ে অবশ্য গত কয়েক বছর ধরেই সমালোচনা হচ্ছে। বিশ্বকাপে সেমিফাইনালেও পৌঁছতে পারেনি পাকিস্তান। বিলেতে সরফরাজের নেতৃত্ব নিয়ে তীব্র সমালোচনা করেছিলেন প্রাক্তন ক্রিকেটাররা।

আরও পড়ুন: বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ সেমিফাইনালে হার, সিদ্ধান্ত নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিলেন মেরি কম

এ বার ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার কাছেও হার মানতে হল পাকিস্তানকে। সোহেল বলেছেন, সরফরাজের দলের ছেলেদের ক্রিকেটার বলে মনেই হয় না। সোহেলের বক্তব্য টুইট করেছেন পাকিস্তানের সাংবাদিক সাজ সাদিক। সেই টুইটে সোহেল লিখেছেন, ‘পাকিস্তান ক্রিকেটে এখন আমরা ফিটনেসের দিকেই বড্ড জোর দিচ্ছি। দেখে শুনে মনে হচ্ছে আমরা ক্রিকেটের চেয়ে অলিম্পিক্স বা ডব্লিউডব্লিউই-র প্রতি বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি। ক্রিকেটারদের সে ভাবেই প্রস্তুত করছি।’ 

 

বিশ্বকাপের পরে পাকিস্তান দলের কোচ পরিবর্তন করা হয়েছে। মিসবা উল হকের হাতে দলের রিমোট কন্ট্রোল তুলে দেওয়া হয়েছে। কোচ হওয়ার পরেই ক্রিকেটারদের ফিটনেসের উপরে জোর দিয়েছেন তিনি। কারণ বিশ্বকাপের সময়ে সরফরাজদের ফিটনেস নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। প্রাক্তন পেসার শোয়েব আখতার পর্যন্ত পাক-অধিনায়কের ফিটনেস নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। দলের দায়িত্ব নেওয়ার পরে বিরিয়ানি-মাংস-মিষ্টি জাতীয় খাবার নিষিদ্ধ করেন মিসবা। ফিটনেসের উপরে জোর দিতে গিয়ে ক্রিকেট ভুলেছেন পাক-ক্রিকেটাররা। প্রথম সারির ক্রিকেটারদের না নিয়ে গিয়েও পাকিস্তানকে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা।

আরও পড়ুন: আট উইকেট পড়ে গিয়েছে, পুণেয় ধুঁকছে দক্ষিণ আফ্রিকা