• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দু’-তিনটি দুর্নীতিকেই ফুলিয়ে-ফাঁপিয়ে দেখানো হচ্ছে, বললেন মমতা

Mamata Banerjee
হাজরার সভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি: টুইটার থেকে

আমপানের ত্রাণ নিয়ে শাসক দলের বিরুদ্ধে স্বজনপোষণ-দুর্নীতির অভিযোগে সরব বিজেপি। সাধারণ মানুষও ত্রাণ না পেয়ে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন রাজ্য়ের বিভিন্ন জায়গায়। এই পরিস্থিতিতে ফের এই নিয়ে মুখ খুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  হাজরায় কলকাতা পুলিশের একটি ‘সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইফ’-এর একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী। দুর্নীতির ইস্যুর পাশাপাশি করোনাভাইরাস নিয়ে সতর্ক থাকার কথাও বলেছেন বন্দ্যোপাধ্যায়। 

রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে আমপানের ত্রাণ নিয়ে দুর্নীতি ও স্বজনপোষণের অভিযোগের জেরে কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে তৃণমূল সরকার। যদিও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় আশ্বস্ত করেছেন, কেউ ত্রাণ থেকে বঞ্চিত হবেন না। টাকা ফেরানোর প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে। এই প্রসঙ্গেই এ দিন হাজরার অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘বাম জমানায় তো প্রায় একশো শতাংশ দুর্নীতি হত। আবার অন্য়ান্য রাজ্যে প্রায় ৯০ শতাংশ দুর্নীতি হয়।  আমরা সেটা ১০ শতাংশে নামিয়ে এনেছি। অল্প দু’-একটি ঘটনা হয়নি এমন নয়। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নেওয়া হচ্ছে। কিন্তু বিরোধীরা সেটাকেই ইস্যু করে শোরগোল করছে।’’ 

রাজ্যে করোনার সংক্রমণ ক্রমাগত বেড়ে চলায় আগামিকাল বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটা থেকে রাজ্যে ফের লকডাউনের নিয়মকানুন আরও কড়া হচ্ছে। সেই প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যবাসীকে সাবধানে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন। এ ছাড়া মাস্ক পরা, ঘন ঘন হাত ধোয়ার মতো করোনা বিধির কথাও স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন তিনি। 

অন্য দিকে কেন্দ্রের একাধিক প্রকল্প নিয়েও এ দিন সুর চড়িয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কেন্দ্রের আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প এ রাজ্যে গৃহীত হয়নি। এ নিয়ে বিজেপি রাজ্য সরকারকে আক্রমণও করে চলেছে। এ প্রসঙ্গে এ দিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘কেন্দ্রের আয়ুষ্মান ভারতের প্রায় দু’বছর আগে আমরা স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প চালু করেছি। সেই প্রকল্পের পুরো প্রিমিয়াম দেয় রাজ্য সরকার। তা হলে কেন কেন্দ্রের প্রকল্প নেব আমরা?’’  

মমতার বক্তব্য: 

• তাহলে আমরা কেন কেন্দ্রের ওই প্রকল্প নেব? 

• স্বাস্থ্যসাথীর পুরো প্রিমিয়াম দেয় রাজ্য সরকার 

• কিন্তু আমরা তার দু’বছর আগে করেছি ‘স্বাস্থ্যসাথী’ প্রকল্প

• কেন্দ্র ‘আয়ুষ্মান ভারত’ প্রকল্প করেছে

• কেন্দ্রীয় সরকারের মতো এফসিআই-এর পচা চাল নয় 

• আমরা সরাসরি চাষিদের কাছ থেকে চাল-গম কিনি, সেটাই মানুষকে দেওয়া হয় 

• আমরা রাজ্যের মানুষকে বিনা পয়সায় খাবার দিচ্ছি 

• তার মধ্যে একটা-দু’টো ঘটনা থাকতে পারে, কিন্তু তার জন্য় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে 

• আমাদের সময় আমরা আমপানের ত্রাণ দিচ্ছি 

• বাম জমানায় কী হারে দুর্নীতি হয়েছে, সবাই জানে 

• অন্য় রাজ্যের চেয়ে এ রাজ্যে দুর্নীতি অনেক কম 

 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন