• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রত্নায় আপত্তি, সরকারি আমন্ত্রণ ফেরালেন শোভন, গেলেন না চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তিতে

kiff 2019
বৈশাখীকে সঙ্গে নিয়ে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গেলেও সমাপ্তিতে রত্না আসবেন বলেই না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শোভন। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

Advertisement

সূচনায় ছিলেন, সমাপ্তিতে নেই। সরকারি আমন্ত্রণপত্র গিয়েছে। খোদ মুখ্যমন্ত্রীও চেয়েছেন, শোভন-বৈশাখী থাকুন চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তি অনুষ্ঠানে। কিন্তু বেহালা পূর্বের বিধায়ক তথা কলকাতার প্রাক্তন মেয়রকে আজ কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের (কেআইএফএফ) সমাপ্তি অনুষ্ঠানে দেখা যাচ্ছে না। যাঁর সঙ্গে তাঁর বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা চলছে, সেই রত্না চট্টোপাধ্যায় এ দিনের অনুষ্ঠানে হাজির হচ্ছেন বলেই এই না যাওয়ার সিদ্ধান্ত।

৮ নভেম্বর বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে সঙ্গে নিয়ে কেআইএফএফ-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছিলেন শোভন। দু’জনকেই রাজ্য সরকারের তরফ থেকে চিঠি পাঠিয়ে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। সে আমন্ত্রণে শোভনরা সাড়াও দিয়েছিলেন। তার আগের দিন বিধায়কদের সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে বৈঠকে বসেছিলেন, সেখানেও শোভন যেতে পারেন বলে জল্পনা তৈরি হয়েছিল। শোভন শেষ পর্যন্ত সে বৈঠকে যাননি। কিন্তু পরের দিন চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে ‘ঘর ওয়াপসি’র জল্পনা তিনি জিইয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু আজ আবার উল্টো ছবি তৈরি হচ্ছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানিয়ে শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে যেমন কার্ড পাঠানো হয়েছিল, তেমন ভাবেই তাঁদের দু’জনকে আজ সমাপ্তি অনুষ্ঠানেও ডাকা হয়েছে। তাঁদের উপস্থিতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে চান, সে রকম বার্তাও শোভনের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছিল বলে তৃণমূল সূত্রের খবর। শোভন প্রথমে ঠিক করেছিলেন যে, তিনি এ দিনের অনুষ্ঠানে যাবেন। কিন্তু এ দিন সকালে পরিস্থিতি বদলে গিয়েছে। রত্না চট্টোপাধ্যায়ও আজকের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন জেনে শোভন-বৈশাখী মত বদলে ফেলেছেন এ দিন।

আরও পড়ুন-সরকারি কর্মীদের কাজে মন নেই, ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী

 

আরও পড়ুন-বনগাঁ লোকালে সবজির ব্যাগে ৯৬ লাখ টাকার সোনার বিস্কুট! গ্রেফতার তিন

 

বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় আনন্দবাজারকে বলেছেন, ‘‘চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তি অনুষ্ঠানে রত্না চট্টোপাধ্যায় যাচ্ছেন বলে জানতে পেরেছি। তিনি যাচ্ছেন বলেই আমরা যাচ্ছি না।’’ শুধু রত্নার উপস্থিতির কারণে সরকারি আমন্ত্রণ ফিরিয়ে দেবেন? বৈশাখী বলেন, ‘‘প্রথমত, নীতিগত ভাবেই রত্না চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে এক পঙ্‌ক্তিতে আসতে আমরা চাই না। আর দ্বিতীয়ত, আমরা চাই না কোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি হোক। তাই যাওয়ার ইচ্ছা থাকলেও আজকের অনুষ্ঠানে যেতে পারছি না।’’

চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপ্তি অনুষ্ঠানে তিনি যাচ্ছেন বলে শোভন-বৈশাখী যে যাবেন না, সে কথা রত্নাও জানতে পেরেছেন। তবে কারও যাওয়া বা না যাওয়ার কথা ভেবে তিনি নিজের কর্মসূচি বদলাবেন না বলে রত্না জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘‘কারা যাবেন, কারা যাবেন না, তাঁদের ব্যাপার। তা নিয়ে আমার কিছু বলার নেই। আমি যাচ্ছি।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন