পুজো শেষে কার্নিভালের অপেক্ষায় রাজ্যবাসী। এ বছরের পুজো কার্নিভালের থিম ‘রাঙা মাটির বাংলা’। দৃষ্টিনন্দন টেরাকোটার কারুকার্যে মূল মঞ্চ তৈরি হয়েছে বাঁকুড়া এবং বিষ্ণুপুরের মন্দিরের আদলে। আগামীকাল, শুক্রবার রেড রোডে ওই কার্নিভালে অংশ নিতে চলেছে কলকাতার ৮০টি পুজো কমিটি। বিকেল চারটে থেকে ওই কার্নিভাল শুরু হওয়ার কথা।

রাজ্যে পালাবদলের পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগেই দুর্গাপুজোকে বিশ্ব পর্যটনেরদরবারে তুলে ধরতে কার্নিভালের আয়োজন করা হয়। গত কয়েক বছর ধরে এই কার্নিভাল বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। দেশ-বিদেশের অতিথিরা হাজির থাকেন কার্নিভালের মঞ্চে। সাধারণ দর্শক থেকে শুরু করে বিশেষ অতিথিদের বসার জন্যে মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে।

এ বারের কার্নিভালে উপস্থিত থাকার কথা রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের। থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং বিভিন্ন দেশের দূতাবাসের প্রতিনিধিরা। এ ছাড়াও বিশিষ্টজনেরাও উপস্থিত থাকবেন ওই কার্নিভালে।

আগামী কাল দুপুর দুটোর মধ্যে রেড রোডে পৌঁছে যাওয়ার জন্য কমিটিগুলোকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে রাজ্য প্রশাসনের তরফে। অনুষ্ঠান শুরু হবে বিকেল চারটে নাগাদ। হাজার পাঁচেক মানুষের বসার ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে প্রশাসন সূত্রে খবর। রেড রোডের দু’পাশে দু’টি মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:হালিশহরে দুষ্কৃতীরাজ! ছেলেকে না পেয়ে বাবাকে খুন করল আততায়ীরা
আরও পড়ুন:রাজনীতির বাঁক চা আন্দোলনে

রেড রোডের দু’পাশে আলোকসজ্জায় সাজিয়ে তোলা হয়েছে। এ ছাড়াও রাজ্য সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প, যেমন রূপশ্রী, কন্যাশ্রী, সবুজ সাথী, খাদ্যসাথী, পথবন্ধু, দিদিকে বলো— আলোকসজ্জার মাধ্যমে তুলে ধরা হবে। উৎসব ঘিরে কড়া নিরাপত্তাও থাকবে। সাদা পোশাকের পুলিশ ভিড় মিশে থাকবে। এ ছাড়া ওয়াচ টাওয়ার থেকেও চালানো হবেনজরদারি।