বসন্তে কয়েক ঘণ্টার মধ্যে পরপর জোড়া ঝড় এনে চমকে দিয়েছিল এ বছরের ফেব্রুয়ারি। এ বার তিন দিনেই বর্ষণের রেকর্ড গড়ে ফেলল সে!

আবহাওয়া দফতরের সূত্র বলছে, সোমবার থেকে বুধবার বিকেল পর্যন্ত কলকাতায় মোট বৃষ্টির পরিমাণ ১০০ মিলিমিটার ছাড়িয়ে গিয়েছে। গত এক দশকে ফেব্রুয়ারিতে কলকাতায় এত বৃষ্টি হয়নি। এর আগে, ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে কলকাতায় মোট বৃষ্টির পরিমাণ ছিল ৯৪.৫ মিলিমিটার। ওই বছর ফেব্রুয়ারির ২৫ তারিখে ৮৩.৫ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছিল। হাওয়া অফিসের ইতিহাসে এক দিনে সব থেকে বেশি বৃষ্টির রেকর্ড সেটাই। এ দিন কলকাতায় বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ৬৯.৯ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। 

হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস, আজ, বৃহস্পতিবার দিনের বেলা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। ভোর বা সকালে কোথাও কোথাও ঝোড়ো হাওয়াও বইতে পারে। আজ তুলনায় বেশি বৃষ্টি হতে পারে উত্তরবঙ্গে। নদিয়া, মুর্শিদাবাদ এবং বীরভূমের কোথাও কোথাও জোর বৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়া দফতরের একটি সূত্র জানাচ্ছে, ২০১৪ এবং ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে তুলনায় ভাবে বেশি বৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু ২০১৬ এবং ২০১৮ সালের দ্বিতীয় মাসে বৃষ্টি হয়নি বললেই চলে। এ বার এই দুর্যোগের পরিস্থিতির জন্য দায়ী পশ্চিমি ঝঞ্ঝা এবং সাগরের জোলো বাতাসের মিলন। তার ফলেই বজ্রগর্ভ মেঘ তৈরি হয়ে ঝড়বৃষ্টি হচ্ছে। সেই সঙ্গে রয়েছে একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখাও। 

‘‘শুক্রবার থেকে গাঙ্গেয় বঙ্গে আবহাওয়ার উন্নতি হবে। দিন দুয়েকের জন্য রাতের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে। তবে শীতের ঘুরে দাঁড়ানোর আর কোনও সম্ভাবনাই নেই,’’ বলছেন কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরের ডেপুটি ডিরেক্টর জেনারেল (পূর্বাঞ্চল) সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়।