সারদা গোষ্ঠীর টাকা ফেরত দিতে চান অভিনেত্রী তথা বীরভূমের তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায়। ইতিমধ্যেই তিনি এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)-এর দফতরে চিঠি দিয়ে টাকা ফেরত দেওয়ার বিষয়ে ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন।

সম্প্রতি শতাব্দী রায়কে সারদা-কাণ্ডে জেরা করতে চেয়ে ইডি আধিকারিকেরা তাঁকে তলব করেন। এর পরেই পাল্টা চিঠি দিয়ে টাকা ফেরতের ইচ্ছাপ্রকাশ করেন তিনি।

ইডি সূত্রে খবর, সারদা গোষ্ঠীর একটি কোম্পানির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর ছিলেন শতাব্দী। তাঁর সঙ্গে কত টাকার চুক্তি হয়ে ছিল, সে বিষয়ে জানতে চেয়ে তাঁকে নোটিস পাঠানো হয়। কিন্তু সংসদ চলছে বলে শতাব্দী নিজে হাজির হতে পারেননি। ইডি-কে চিঠি দিয়ে সবিস্তার জানিয়েছেন। তাতে তিনি ২৯ লক্ষ টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার কথাও জানিয়েছেন বলে ইডি সূত্রে খবর। এ বিষয়ে শতাব্দী রায়কে একাধিক বার ফোন করা হয়। তাঁর ফোন পরিষেবা সীমার বাইরে রয়েছে বলে জানানো হয়।

আরও পড়ুন: নরেন্দ্রপুরের বাগানবাড়িতে দম্পতি খুন, দেহ ট্রাভেল ব্যাগে পুরে দরজায় তালা দিল আততায়ীরা

দিল্লি হাইকোর্টে আজই আর্জি জানাবেন মুকুল

২০১৫ সালে সারদা-কাণ্ডে অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীও ১ কোটি ১৯ লক্ষ ৮৮ হাজার ৫৬০ টাকা ফিরিয়ে দিয়েছিলেন ইডি-কে। তখন তিনি রাজ্যসভায় তৃণমূলের সাংসদ ছিলেন। মিঠুন টাকা ফেরতের বিষয়ে ইচ্ছাপ্রকাশের পর ইডি আধিকারিকেরা তাঁর সঙ্গে কথা বলেন। পরে ওই অঙ্কের একটি ড্রাফ্ট তিনি তাঁর আইনজীবীর মাধ্যমে ইডির কাছে পৌঁছে দেন।

যদিও ইডি শতাব্দী রায়ের কাছ থেকে এই টাকা ফেরত নেওয়ার বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেনি।