Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

জল জমা নিয়ে নেটমাধ্যমে তোপ, বাড়িতেই ‘রাজ-দর্শন’ ব্যারাকপুরের যুবকের

নিজস্ব সংবাদদাতা
ব্যারাকপুর ২৯ মে ২০২১ ১৯:২৭
রাজ চক্রবর্তী এবং তাঁর ডান পাশে হাতে মোবাইল নিয়ে সপ্তর্ষি বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ চক্রবর্তী এবং তাঁর ডান পাশে হাতে মোবাইল নিয়ে সপ্তর্ষি বন্দ্যোপাধ্যায়।
—নিজস্ব চিত্র।

প্রবল বৃষ্টিতে বাড়ির সামনে জমা জলের সমস্যা নিয়ে নেটমাধ্যমে তোপ দেগেছিলেন ব্যারাকপুরের যুবক। সমস্যা সমাধানে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সটান ওই যুবকের বাড়িতে হাজির হলেন স্থানীয় বিধায়ক রাজ চক্রবর্তী। দিলেন সমস্যা সমাধানের আশ্বাস।

ঘটনার সূত্রপাত, শুক্রবার রাতে। ব্যারাকপুর পুরসভার ২২ নম্বর ওয়ার্ডের গাঁজাগুলি এলাকার বাসিন্দা সপ্তর্ষি বন্দ্যোপাধ্যায় ওই রাতে ফেসবুক লাইভে এলাকায় জল জমা নিয়ে অভিযোগ করেন। সপ্তর্ষির দাবি, বহু বার, বহু জায়গায় ওই অভিযোগ করেও কোনও সুরাহা হয়নি। রাজ বলছেন, ‘‘গত কাল রাতে ঘুমোতে যাওয়ার সময় ফেসবুকে একটা পোস্ট দেখি। দেখলাম এক জন প্রতিবাদ করে পোস্ট করেছেন। তাঁর বাড়ির সামনে জল জমে আছে। তখনই আমি তাঁকে লিখলাম, তোমার বাড়ি কোথায় বলো? আমি সকালে যাচ্ছি।’’

কথা মতো শনিবার সকালে সপ্তর্ষির বাড়িতে উপস্থিত হন রাজ। তৃণমূল বিধায়ক বলছেন, ‘‘সপ্তর্ষির বন্ধুরা, যাঁরা আমাকে পছন্দ করেন না বা আমার দলকে পছন্দ করেন না তাঁরা দেখলাম সকলে লিখেছেন— আমি না কি গায়ে হাওয়া লাগিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছি। আমি তারকা প্রার্থী। এখানে আমার কোনও কাজ নেই।’’ তাঁর আশ্বাস, ‘‘সকলকে একটাই কথা বলব, কাজ অবশ্যই শেষ করব। কী ভাবে এই সমস্যা দূর হয় তা অবশ্যই দেখব। একটু সময় লাগবে। পরের বর্ষায় যাতে সকলকে কষ্টভোগ না করতে হয় সেই বিষয়টা আমি দেখব।’’

Advertisement

রাজের এই বাড়ি বয়ে এসে অভিযোগ শোনা এবং সমস্যা সমাধানের আশ্বাসে সপ্তর্ষি তো বটেই খুশি এলাকার বাসিন্দারাও। বিধায়কের পাশে দাঁড়িয়ে সপ্তর্ষির মন্তব্য, ‘‘রাজ’দা নতুন বিধায়ক। কিন্তু এলাকার যিনি চেয়ারম্যান এবং কাউন্সিলর তাঁদের খুঁজে পাওয়া যায় না। গত কাল এলাকা জলে ভেসে গিয়েছিল। বাবা, মা এবং আমি ঘর থেকে জল বার করছিলাম। সেই সময়েই জলে দাঁড়িয়ে লাইভ করেছি। আমি খারাপ কথা বলিনি। রাজ’দা দেখে উত্তর দিয়েছেন। আমি এটা আশা করিনি।’’ স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন, ‘‘বিধায়ককে দেখলাম। ওঁর এই ভাবে অভিযোগ শোনার ভঙ্গিতে আমরা খুশি। তবে সমস্যার সমাধান হোক।’’

আরও পড়ুন

Advertisement