Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Mobile ear phones: ট্রেন লাইনে বসে কানে হোডফোন দিয়ে মোবাইল গেম খেলতে গিয়ে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, মৃত ২

শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার লক্ষ্মীকান্তপুর লোকালের জয়নগর-মজিলপুর ও বহড়ু স্টেশনের মাঝে কাকাপাড়া রেলগেটের কাছে এই দুর্ঘটনা হয়।

নিজস্ব সংবাদদাতা
বারুইপুর ২৮ জানুয়ারি ২০২২ ২২:৩৯
Save
Something isn't right! Please refresh.
লাইনে পড়ে মৃতের রয়েছে ডুতো।

লাইনে পড়ে মৃতের রয়েছে ডুতো।
নিজস্ব চিত্র

Popup Close

লাইনে বসে কানে হেডফোন লাগিয়ে মোবাইলে গেম খেলার সময় ঘটে গেল মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। ট্রেনের ধাক্কায় মৃত্যু হল দুই তরতাজা যুবকের। শুক্রবার শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার লক্ষ্মীকান্তপুর লোকালের জয়নগর-মজিলপুর ও বহড়ু স্টেশনের মাঝে কাকাপাড়া রেলগেটের কাছে এই দুর্ঘটনা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতদের নাম সৌরভ মারিক(২০), রেজাউল শেখ(১৭)। লাইনের পাশ থেকে দু’টি মোবাইল ফোনও উদ্ধার হয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, সৌরভ জয়নগর থানার বহড়ু দক্ষিণ পাড়ার বাসিন্দা। দক্ষিণ বারাসাত ধ্রুবচাঁদ হালদার কলেজের তৃতীয় বর্ষে পাঠরত ছিলেন তিনি। অন্যদিকে, রেজাউলের বাড়ি জয়নগর থানারই আলিপুর শেখ পাড়ায়। রেজাউল মায়ের সঙ্গে বিস্কুট বিক্রির কাজ করতেন। এর আগে দিল্লিতে ব্যাগ মেরামতের কাজ করতে গিয়েছিলেন। কয়েকমাস আগেই তিনি বাড়ি ফেরেন। বাবা দিনমজুরের কাজ করেন।

দুই বন্ধুর মোবাইলে গেম খেলার নেশা সাতসকালে মৃত্যু ডেকে আনবে ঘুণাক্ষরেও টের পায়নি তাঁদের পরিবার। এ দিন স্থানীয় বাসিন্দারা রেললাইনের পাশে দেহ পড়ে থাকতে দেখে বারুইপুর জিআরপি থানায় খবর দেয়। বাসিন্দারা বলেন, প্রায় সময়েই দু’জন মোবাইল নিয়ে লাইনে বসে থাকত। এদিনও দু’জনে কানে হেডফোন দিয়ে আপ লাইনে বসে ছিল। আচমকা ট্রেন এসে একজনের গলার উপর দিয়ে আর একজনের পায়ের উপর দিয়ে চলে যায়। দেহের পাশেই পড়ে ছিল জুতো। উদ্ধার হওয়া মোবাইল থেকেই তাদের বাড়িতে খবর দেয় পুলিশ।

Advertisement

এলাকায় বেশ ভাল ছেলে বলে পরিচয় ছিল সৌরভের। বৃহস্পতিবারই কলেজের ফাইনাল পরীক্ষা দিয়েছেন তিনি। প্রায় সময় ঘুড়ি ওড়ানোর জন্য লাইনের পাশে যেতেন বলে জানা গিয়েছে। এদিকে, মায়ের সঙ্গেই দোকানে বিস্কুট বিক্রি করতে বেরিয়েছিল রেজাউল। রেজাউলের মৃত্যুর খবর পেয়েই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন তাঁর মা।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement