Advertisement
১৬ জুন ২০২৪
100 days' work

একশো দিনের কাজের টাকা নিয়ে জট কাটছে! সোমবার দিল্লিতে কেন্দ্রের সঙ্গে রাজ্যের বৈঠক

কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়নমন্ত্রী গিরিরাজ সিংহের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী প্রদীপ মজুমদার। একশো দিনের কাজের টাকা নিয়ে জট কাটবে?

একশো দিনের কাজের টাকা নিয়ে কি জটিলতা কাটবে?

একশো দিনের কাজের টাকা নিয়ে কি জটিলতা কাটবে? ফাইল চিত্র

অমিত রায়
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৭ নভেম্বর ২০২২ ১১:২৩
Share: Save:

একশো দিনের কাজের পশ্চিমবঙ্গের পাওনা গণডা নিয়ে শেষমেষ বৈঠকে বসছে কেন্দ্র-রাজ্য। সব ঠিকঠাক চললে সোমবার দিল্লিতে কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়নমন্ত্রী গিরিরাজ সিংহয়ের সঙ্গে বৈঠক করবেন রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী প্রদীপ মজুমদার। গত বছর ডিসেম্বর মাস থেকে একশো দিনের কাজে রাজ্যের পাওনা আটকে রেখেছে কেন্দ্র, এমনটাই অভিযোগ ছিল রাজ্য সরকারের। ১০ মাসে প্রায় সাড়ে সাত হাজার কোটি টাকা পাওনা বকেয়া রয়েছে রাজ্যের। প্রাপ্য অর্থের আবেদন জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চিঠি পাঠিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে। তাতেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। অবশেষে সেই বিষয়টি নিয়েই দুই মন্ত্রীর মধ্যে বৈঠক হচ্ছে। রবিবার অন্ডাল বিমানবন্দর থেকে দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে যান রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী। তাই এই বৈঠক ঘিরে আবারও আশার আলো দেখতে পারে নবান্ন, এমনটাই আশা রাজ্যের প্রশাসনিক মহলের।

কারণ গত চার বছর ৪ নভেম্বর রাজ্যের তৎকালীন পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যুর পর থেকেই এই জটিলতার সূত্রপাত। সুব্রত প্রয়াণের পর দফতরের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল জনস্বাস্থ্য কারিগরি মন্ত্রী পুলক রায়কে। তাঁর জমানাতেও কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়নের মন্ত্রকের সঙ্গে রাজ্য পঞ্চায়েত দফতরের একাধিক চিঠি চালাচালি হলেও রাজ্যের প্রাপ্য অর্থ দেয়নি কেন্দ্র, এমনটাই অভিযোগ। কিন্তু এ বার গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রী গিরিরাজ পঞ্চায়েত মন্ত্রীকে বৈঠকের জন্য সময় দেওয়ায় রাজ্যে প্রাপ্য অর্থ পাওয়ার আশা দেখছেন নবান্নের শীর্ষ কর্মকর্তারা। পঞ্চায়েত দফতরের আধিকারিক জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় সরকার ১০০ দিনের কাজ নিয়ে যে সমস্ত নথি ও তথ্য চেয়ে পাঠিয়েছিল, তা দেওয়া হয়েছে মন্ত্রকে। তাই বৈঠকের আগেই যাবতীয় তথ্য গ্রাম উন্নয়ন মন্ত্রকে জমা পড়ে যাওয়ায় ফলপ্রসূ সিদ্ধান্তের আশা করছে রাজ্য সরকার।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE