মনস্তত্ত্ব নিয়ে স্নাতকস্তরের পড়াশোনা করছিলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অস্টিন নিবাসী ২৪ বছরের তরুণী তালে জাভন। আগামী মার্চেই গ্র্যাজুয়েশন সম্পূর্ণ হবে তাঁর। কিন্তু এই পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার লড়াইটা সহজ ছিল না তাঁর জন্য। কারণ বেশ কয়েক মাস আগেই মারণ ব্যাধি ক্যানসার থাবা বসিয়েছে শরীরে।

কিন্তু অসুস্থতার জন্য পড়াশোনার ক্ষতি হলেও তা থামতে দেননি তিনি। অনলাইনেই চালিয়ে গিয়েছেন পড়াশোনা। একই সঙ্গে চলতে থাকে কেমোথেরাপিও। কেমোর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হিসেবে মাথার সব চুল উঠে যায় তাঁর।

এই অবস্থায় এগিয়ে আসে গ্র্যাজুয়েশনের শংসাপত্র নেওয়ার দিন। তাই সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের পরিস্থিতি জানিয়ে জাভন লিখেছিলেন যে, কেউ কি এমন আছেন যিনি এই অবস্থায় তাঁকে সাহায্য করতে পারে? আসলে মাথার চুল প্রায় নেই এখন তাঁর। তাই এখন হেয়ার স্টাইলিস্ট খুঁজছেন তিনি। জাভনের অনুরোধে সাড়াও দিয়েছেন ওহিয়োর এক স্টাইলিস্ট।

আরও পড়ুন: ভারত বলল, বায়ুসেনার পাইলট নিখোঁজ, পাক দাবি, তাদের হেফাজতে

ছড়িয়ে পড়ে জাভনের টুইটটি। অনেকেই তাঁকে নানা রকম পরামর্শ দিতে থাকেন। কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওহিয়োর এক নাম করা স্টাইলিস্ট জ্যাজ সেই টুইটের প্রেক্ষিতে লেখেন যে তিনি অরল্যান্ডো থেকে বিমানে আসছেন জাভনের কাছে। সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সাজিয়ে দেবেন জাভনকে।

আরও পড়ুন: শিশু হেনস্থায় দোষী ভ্যাটিকান যাজক

এই টুইট দেখবার পরে চোখের জল ধরে রাখতে পারেননি ওই তরুণী। স্টাইলিস্ট জ্যাজকে অকুণ্ঠ ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।