• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

করোনার জেরে ঘরবন্দি, ‘প্রতিবেশী’ কাঠবিড়ালির জন্য বানিয়ে দিলেন পিকনিক টেবিল

Suirrel
কাঠবেড়ালির জন্য পিকনিক টেবিল। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া।

করোনাভাইরাসের জেরে প্রায় স্তব্ধ বিশ্ব। ঘরবন্দি থাকতে হচ্ছে বেশির ভাগ মানুষকে। সারাদিন এভাবে ঘরে বসে কী করবেন, তা অনেকেই বুঝে উঠতে পারছেন না। আবার অনেকেই সৃষ্টিশীল কিছু করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। চেষ্টা করছেন প্রতিবেশীদেরও একটু ভাল রাখাতে। সেই প্রতিবেশী আবার সব সময় মানুষ না হয়ে, পাশের গাছের কাঠবিড়ালিটিও হতে পারে। আমেরিকার পেনসিলভেনিয়ার এক যুবকের এমনই এক মজার সৃষ্টি এখন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। তিনি কাঠবিড়ালির বসে খাওয়ার জন্য বানিয়েছেন একটি পিকনিক টেবিল।

পেনসিলভেনিয়ার ব্রায়ান মাওর এলাকার বাসিন্দা বছর তেতাল্লিশের যুবক রিক কালিনাউস্কি তাঁর প্রতিবেশী এক কাঠবিড়ালির জন্যে এই পিকনিক টেবিলটি বানিয়েছেন। ফক্স নিউজ-কে রিক জানিয়েছেন, সকালের কফি খাওয়ার সময় তিনি রোজ তাঁর প্রতিবেশী কাঠবিড়ালিটিকে দেখতে চান। তাই এই পিকনিক টেবিল বানিয়ে দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, কাঠবিড়ালিটির জন্যে তিনি নানান রকম বাদাম, কিছু তাজা ফল রেখে আসেন সেই টেবিলে। রিক জানিয়েছেন, এই টালমাটাল সময়ে জানালার বাইরে সকাল সকাল এমন দৃশ্য তাঁকে আনন্দ দেয়।

রিকের এই পিকনিক টেবিলের আইডিয়া কয়েক দিনের মধ্যেই বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। এমনকি অন্য নেটাগরিকরা তাঁদের তৈরি এমন পিকনিক টেবিলের ছবিও পোস্ট করেছেন। ধন্যবাদ জানিয়েছেন রিককে।

আরও পড়ুন: ১০ বছরের চেষ্টা সফল হয়নি, করোনার সুযোগে মিলন দুই পান্ডার

ছবি পোস্ট করে এক ইউজার যেমন লিখেছেন, 'কাঠবিড়ালির আসার অপেক্ষায় রয়েছি'। অন্য একজন লিখেছেন, 'আশা করি, কাঠবিড়ালিদের ঘরবন্দি থাকার কোনও নির্দেশ নেই'।

আরও পড়ুন: সংক্রমণের ভয় নেই, হ্যান্ডওয়াশ, ট্যাপ না ছুঁয়েই ধুয়ে ফেলুন হাত

দেখুন সেই পোস্ট:

 

 

করোনাভাইরাস মানুষকে এই কঠিন পরিস্থির মধ্যে ফেললেও প্রকৃতির অন্য সন্তানদের যেন দু’হাত ভরে দিচ্ছে। মানুষও যেন এই পৃথিবীতে প্রাণীদের অস্তিত্ব, সান্নিধ্য আরও বেশি করে অনুভব করছে। তাই সকাল সকাল কাঠবিড়ালির দেখা পেতে তাদের জন্য টেবিল বানিয়ে অপেক্ষা করছেন এক সঙ্গে কফি খাওয়ার জন্য।

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানা ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের সঙ্গে। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা, তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি প্রকাশযোগ্য বলে বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন