দুই জায়ে ঝগড়া অনেক পরিবারেরই নিত্যদিনের সমস্যা। অনেক ক্ষেত্রেই প্রভাব ফেলে দুই ভাইয়ের সম্পর্কে। সব সময় প্রচারের আলোয় থাকা ব্রিটিশ রাজ পরিবারও এর ঊর্ধ্বে যেতে পারেনি। ওই পরিবারের দুই পুত্রবধু মেগান মার্কলেকেট মিডলটনের মধ্যে সম্পর্কের দূরত্ব প্রতিদিনই বেড়ে চলেছে। সম্প্রতি সেই মনোমালিন্যের কারণ নিয়ে মুখ খুলেছেন তাঁদের শাশুড়ি প্রিন্সেস ডায়নার প্রিয় বান্ধবী লেডি কলিন ক্যাম্পবেল।

কেট মিডলটনের সঙ্গে আগেই বিয়ে হয়েছিল প্রিন্স উইলিয়ামের।  তার কয়েক বছর পর উইলিয়ামের ভাই হ্যারি বিয়ে করেন মেগান মার্কলেকে। হ্যারি বিয়ে করার পর থেকেই নাকি ব্রিটিশ রাজ পরিবারে পারিবারিক কলহের সূত্রপাত।

হ্যারি বিয়ে করার পর থেকেই নাকি তাঁর দাদা উইলিয়ামের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি হয়। তার পর কেট ও মেগানের মধ্যে ঝগড়া দুই ভাইয়ের দূরত্ব আরও বাড়িয়েছে।

আরও পড়ুন: অস্ট্রেলিয়ায় ভারত-সহ বহু দূতাবাসে রহস্যজনক ‘প্যাকেট’! কর্মীদের বাইরে বের করে তল্লাশি

প্রিন্সেস ডায়নার প্রিয় বান্ধবী ক্যাম্পবেল বলেছেন, ‘‘বিয়ের পর মানুষের মধ্যে একটা পরিবর্তন আসে।’’ বিয়ের পর দাদা উইলিয়ামের প্রতি হ্যারির আচরণেরও বদল ঘটেছিল। মেগানকে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়ে উইলিয়াম প্রশ্ন তোলায় দাদার উপর বিরূপ হয়েছিলেন হ্যারি।

মেগান রয়্যাল পরিবারের জন্য কতটা উপযুক্ত সে প্রশ্ন তোলার পরও দূরত্ব বাড়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে। স্বাভাবিকভাবে বৌদি কেটের সঙ্গেও মতবিরোধ হয় হ্যারির। এই মত বিরোধ থেকে তৈরি হওয়া মানসিক দূরত্বই রাজ পরিবারের দুই বধুর ঝগড়ার অন্যতম কারণ।

আরও পড়ুন: দেশ ছাড়তে চান ১৬%

 

(সব গুরুত্বপূর্ণআন্তর্জাতিক খবরজানতে চোখ রাখুন আমাদের আন্তর্জাতিক বিভাগে।)