• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ভারতে হামলার জন্য জইশ জঙ্গিদের ব্যবহার করেছে পাক গোয়েন্দা সংস্থা! বিস্ফোরক মুশারফ

Pervez Musharraf
প্রাক্তন পাক প্রেসিডেন্ট অবসরপ্রাপ্ত সেনাপ্রধান জেনারেল পারভেজ মুশারফ। —ফাইল চিত্র।

পাক সেনার সঙ্গে পরোক্ষ ভাবে জইশ জঙ্গিদের যোগসূত্রের জল্পনা বহুদিনের। জঙ্গিদের ভারত-হামলার পিছনে যে পাকসেনার মদত রয়েছে তা নিয়েও জল্পনা ছিলই। কিন্তু প্রতিবারই তার বিরোধিতা করে এসেছে পাকিস্তান। এ বার সেই জল্পনাতেই সিলমোহর দিলেন প্রাক্তন পাক প্রেসিডেন্ট অবসরপ্রাপ্ত সেনাপ্রধান জেনারেল পারভেজ মুশারফ

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম হাম নিউজের সাংবাদিক নাদিম মালিকের নেওয়া একটি টেলিফোন সাক্ষাৎকারে এ কথা জানান তিনি। ওই সাক্ষাৎকার সাংবাদিক নিজের ফেসবুক এবং টুইটার পেজে শেয়ারও করেছেন।

জইশের বিরুদ্ধে ভারতের পদক্ষেপের প্রশংসা করেন তিনি। আইএসআই-এর নাম না করেই মুশারফ সাক্ষাৎকারে জানান, জঙ্গি সংগঠন জইশ ই মহম্মদকে পাক গোয়েন্দা সংস্থা ভারতের উপর হামলার জন্য কাজে লাগায়। যদিও এমনকি ২০০৩ সালে ডিসেম্বরে তাঁকেও দু’বার হত্যার চেষ্টা করেছিল জঙ্গিরা, জানান তিনি।

আরও পড়ুন: জম্মুর জেলে সরানো হল ইয়াসিন মালিককে, কাশ্মীরে সেনার গুলিতে হত এক জঙ্গি

১৯৯৯ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় ছিলেন মুশারফ। সে সময় তিনি সবই জানতেন। এত কিছু ঘটল অথচ সবটা জানা সত্ত্বেও ক্ষমতায় থাকাকালীন তিনি জইশ ই মহম্মদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিলেন না কেন? ওই সাংবাদিকের এই প্রশ্নের উত্তরে প্রাক্তন পাক-প্রেসিডেন্ট জানান, তখনকার পরিস্থিতি ‘আলাদা’ ছিল। ভারত এবং পাকিস্তান ‘নিজেদের সীমানা পেরিয়ে ক্রমাগত বোমা বর্ষণ করে চলেছে।’ এবং তাঁর দেশের গোয়েন্দা সংস্থা প্রত্যক্ষ ভাবে এর সঙ্গে যুক্ত। পাক সেনাও তাতে মদত দিত। এই অবস্থায় কোনও ব্যবস্থা নেওয়া তাঁর পক্ষে সম্ভব ছিল না।

আরও পড়ুন: বালাকোটের উপগ্রহ চিত্রে সংশয়, প্রমাণ চায় পুলওয়ামা হামলায় নিহতদের পরিবার

এটাই অবশ্য প্রথম নয়, গণতন্ত্রের ভিত যে কোনও দিনই মজবুত নয় পাকিস্তানে, সেনাবাহিনীর ভূমিকাই যে গুরুত্বপূর্ণ এবং পাকিস্তানের মানুষও সেনাবাহিনীকেই বেশি ভরসা করতে শিখেছেন, ২০১৬ সালে ‘ওয়াশিংটন আইডিয়াজ ফোরাম’ –কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে খুব সহজ ভাবে এই সত্যি কথাটা সরাসরি কবুল করে নিয়েছিলেন মুশারফ আগেও।

আরও পড়ুন: ভারতে সন্ত্রাসবাদ হামলা কবে, কোথায়

এত দিন পাকিস্তানের তরফেও জঙ্গি সংগঠনগুলোর বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি। পুলওয়ামা হামলার পর আন্তর্জাতিক মহলের চাপে পাকিস্তান সদ্য জইশ জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযানে নামার দাবি করছে। মাসুদ আজহারের দুই সংগঠন জামাত-উদ-দাওয়া ও ফলাহ-ই-ইনসানিয়তের বিরুদ্ধে গতকাল অর্থাৎ বুধবারও অভিযান চালানোর দাবি জানিয়েছে পাকিস্তান। পাক সরকারের অর্থসচিব স্বীকার করে নিয়েছেন, মে মাসের মধ্যে জঙ্গি গোষ্ঠীগুলির বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ না করলে সন্ত্রাসবাদ বিরোধী আন্তর্জাতিক সংগঠন এফএটিএফের কালো তালিকায় পড়তে হবে তাদের। তা সত্ত্বেও পাক সেনা কিন্তু এখনও দাবি করে চলেছে, সে দেশের মাটিতে জইশের কোনও অস্তিত্বই নেই।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন