সিডনি বন্দর থেকে রওনা দেওয়ার পর থেকেই বিলাসবহুল জাহাজে শুরু হল পার্টি। রয়্যাল ক্যারিবিয়ান ইন্টারন্যাশনালের ক্রুজ শিপে চলছিল থিম পার্টি। ভারতীয় একটি পান মশলা সংস্থার প্রায় ১৩০০ জন কর্মী ছিলেন ওই জাহাজে। কার্যত তারাই ‘হাইজ্যাক’ করলেন জাহাজ। শুরু করলেন ‘ওয়াইল্ড পার্টি।’ শুরু হল উচ্ছৃঙ্খল আচরণ। বাধ্য হয়ে অন্য আরোহীদের ক্ষতিপূরণ দিল রয়্যাল ক্যারিবিয়ান।

মহিলাদের একের পর ছবি ও ভিডিয়ো তোলা শুরু হতেই শুরু হয় অশান্তি। বেশ কয়েক জনের বিরুদ্ধেই অশ্লীল আচরণের অভিযোগ ওঠে। মত্ত অব্স্থায় গোটা জাহাজে দৌড়ে বেড়াচ্ছিলেন ওই কর্মীরা। হাত ধরে টানছিলেন মহিলাদের। পানশালায় ভাঙচুরের অভিযোগও ওঠে পান মশলা সংস্থার কর্মীদের বিরুদ্ধে।

জাহাজের ডেক, বার, হল, এমনকি আরোহীদের ঘরেও প্রবেশ করার চেষ্টা করেন ওই কর্মীরা। মহিলাদের সঙ্গে অশালীন আচরণও করেন, অভিযোগ এমনটাই। ওই জাহাজের এক আরোহী বললেন, ‘‘নিজেদের ঘরে ঢুকে দরজা আটকে কোনওক্রমে বাঁচতে পেরেছি।’’

আরও পড়ুন: দিল্লিতে চলন্ত বাইকে বিষাক্ত রাসায়নিক পড়ে মৃত্যু আরোহীর

জাহাজের জায়ান্ট আউটডোর স্ক্রিনে ছবি দেখতেও আসতে পারছিলেন না আরোহীরা। ক্রিস্টিন ওয়েলিং নামে এক আরোহী বলেন, ‘‘পরিবারের সকলকে নিয়ে মজা করতে এসেছিলাম, তাই খরগোশের আউটফিট পরেছিল কেউ কেউ, কিন্তু তার পর যে এরকম হবে ভাবতে পারিনি।’’

আরও পড়ুন: নিয়মিত ঠাট্টা, দুই দাদাকে গুলি করে খুন করল ভাই

রয়্যাল ক্যারিবিয়ানের তরফে ঘটনার পর ক্ষমা চেয়ে একটি বিবৃতিতে বলা হয়, তদন্ত করা হচ্ছে। প্রায় এক তৃতীয়াংশ দখলই চলে গিয়েছিল ভারতীয় কর্মীদের কাছে। তার পরই শুরু হয় তাদের উচ্ছৃঙ্খল আচরণ।