দীর্ঘ এক দশক কোমায় থাকা অবস্থাতেও অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন এক রোগী। আর সেই ঘটনাটি ঘটে নার্সিংহোমেই। বড়দিনের ৪ দিন পর সেই কোমায় থাকা রোগী একটি ফুটফুটে পুত্রসন্তানের জন্ম দেওয়ায় ধর্ষণের কথা জানাজানি হয়। এমনকি, ওই রোগী যে সন্তানসম্ভবা, বড়দিনের আগে তা টেরও পাননি নার্সিংহোমের ডাক্তার, নার্সরা। তাঁর দেখভাল করছিলেন যে নার্সরা, তাঁদেরই এক জন ওই রোগীকে প্রসব করান, তড়িঘড়ি। সদ্যোজাত সুস্থ রয়েছে। 

ঘটনাটি ঘটেছে আমেরিকার আরিজোনায় ‘ফিনিক্স হাসিয়েন্ডা হেল্থকেয়ার ফেসিলিটি নার্সিংহোম’-এর একটি কেবিনে। নার্সিংহোমটি চালায় একটি অলাভজনক সংগঠন। কোমায় থাকা ওই রোগীকে কে যৌন নির্যাতন করেছিলেন, তা এখনও জানা যায়নি বলে ওই নার্সিংহ‌োমেরই একটি সূত্রের খবর। ওই সূত্রটি বলেছেন, ‘‘যৌন নির্যাতনের সময় রোগীকে গোঙাতে শোনা গিয়েছিল। কিন্তু তখন নার্সিংহোমের কেউই ব্যাপারটার গুরুত্ব অনুধাবন করতে পারেননি। বড়দিনের আগে নার্সিংহোমের কর্মীরা বুঝতেও পারেননি, ওই রোগী সন্তানসম্ভবা।’’

ফিনিক্স পুলিশ জানিয়েছে, তদন্ত পুরোদমে শুরু হয়েছে। তবে এখনও অপরাধীকে শনাক্ত করা যায়নি।

আরও পড়ুন- আমেরিকার উন্নয়নে কাজ করুন, বিদেশি পড়ুয়াদের বার্তা ট্রাম্পের​

আরও দেখুন- ২০৬ বছর পর মিলল নেপোলিয়নের লুকিয়ে রাখা বিপুল গুপ্তধন?​

টেলিফোন না ধরায় বা সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে না চাওয়ায় জানা যায়নি নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষের প্রতিক্রিয়াও। পরে অবশ্য নার্সিংহোমের তরফে দেওয়া একটি বিবৃতিতে জানানো হয়, ‘‘বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’’